তানোরে আদিবাসীর পুকুর জোর দখল, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা

মাহবুব জুয়েল, তানোর প্রতিনিধি:  রাজশাহীর তানোরে আদিবাসি পল্লীর ৩টি সরকারি খাস পুকুর জবরদখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব পুকুর জবরদখলের ঘটনায় আদিবাসি পল্লীর বাসিন্দাদের মধ্যে চরম অসন্তোষ সৃস্টি হয়েছে। তানোরের কলমা ইউপির আজিজপুর নলপুকুরিয়া আদিবাসি পল্লীতে এসব পুকুর জবরদখলের ঘটনা ঘটেছে।

আজিজপুর গ্রামের মৃত লতিব ডাক্তারের পুত্র ও কলমা ইউপি সৈনিক লীগ নেতা তানভির রেজার ভাই টিটু এমপির নাম ভাঙ্গিয়ে এসব পুকুর জবরদখল করেছে বলে আদিবাসিদের অভিযোগ। এ দিকে আদিবাসি পল্লীর বাসিন্দারা এসব পুকুর অবৈধ দখল মুক্ত করে অবৈধ দখলদারের দৃস্টান্তমুলক শাস্তির দাবি করে স্থানীয় সাংসদ (এমপি), রাজশাহী জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। জানা গেছে, তানোরের কলমা ইউপির আজিজপুর নলপুকুরিয়া আদিবাসি পল্লীতে প্রায় ৫০টি আদিবাসি পরিবারের বসবাস।

এখানে নলপুকুরিয়া মৌজায় এক নম্বর খাসখতিয়ান ভুক্ত ১৩৫ দাগে এক একর ২৪ শতক ও ১২৮ নম্বর দাগে এক একর ২২ শতক ও আজিজপুর আদিবাসি শ্বশানঘাটে দুই বিঘা আয়তনের একটি খাস পুকুর রয়েছে। আদিবাসি প্রায় ৫০টি পরিবার বংস্পরম্পরায় এখানে বসবাস ও পুকুরগুলো ভোগদখল করে আসছে। কিন্তু টিটু কোনো কাগজপত্র ছাড়াই সরকারিভাবে ইজারা নেয়ার কথা বলে এসব পুকুর জবরদখল করেছে। অথচ জলমহাল নীতিমালায় বলা হয়েছে জনস্বার্থে ব্যবহার্য পুকুর ইজারা দেবার কোনো সুযোগ নাই।

আদিবাসি পল্লীর চন্দনা রানী, চিন্তা মণি, গণেশ ও সৌরভ বলেন, তারা এসব পুকুরে গবাদি পশুর গোসল, গৃহসস্থালীর কাজে ব্যবহার ও অনেক সময় খাবার পানি হিসেবে ব্যবহার করেন। কিন্তু টিটু পুকুর জবরদখল করে মাছ চাষ ও মাছের খাবার হিসেবে মানুষ-পশু-পাখির বিষ্ঠা পুকুরে দেয়ায় পানি ও আশপাশের পরিবেশ নস্ট হচ্ছে। পুকুরের পানি ব্যবহার করতে না পেরে আমরা চরম মানবেতর জীবনযাপন করছি। অথচ এসবের প্রতিবাদ করতে গেলে টিটু আমাদের ঘর-বাড়ি জ্বালিয়ে দিয়ে আমাদের এলাকা ছাড়া করার হুমকি দিচ্ছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে টিটু অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তারা উপজেলা নারী ভাইস-চেয়ারম্যানের কাছে থেকে ইজারা নিয়েছেন।