তজুমদ্দিনে প্রানী সম্পদ কর্মকর্তার সেচ্ছাচারিতায় ডেইরী ফার্ম ধ্বংসের মুখে। বিনা চিকিৎসায় মরছে গরু

ফারহান-উর-রহমান সময়,  তজুমদ্দিন প্রতিনিধি:  ভোলার তজুমদ্দিনে প্রানী সম্পদ ও ভেটেরিনারি হাসপাতাল (পশু হাসপাতাল) কর্মকর্তা ডাঃ পলাশ চন্দ্র সরকারের অনিয়ম ও সেচ্ছাচারিতায় ধ্বংসের মুখে পড়েছে উপজেলার ডেইরী ফার্ম ও গরু খামারীরা । বিনা চিকিৎসায় মারা যাইতেছে গরু-ছাগল-মহিষ। নিয়মিত অফিস করছেন না ওই কর্মকর্তা। এসব বিষয়ে বিচার ও তদন্ত দাবী করে প্রানী সম্পদ মন্ত্রণালয়, দূর্নীতি দমন কমিশন, আমার এমপি ডট কম, জেলা প্রশাসক, প্রেসক্লাব সহ বিভিন্ন দপ্তরে ৩১ সদস্যের স্বাক্ষরিত লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ডেইরী ফার্ম এ্যাসোসিয়েশন ও গরু খামারীরা।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, ডাঃ পলাশ চন্দ্র সরকার নিয়মিত অফিস করেন না। জেলার বাহিরে বিভাগীয় শহর বরিশালে স্বপরিবারে অবস্থান করছেন। টাকা ব্যতীত তিনি চিকিৎসা করেন না। সঠিক সময়ে চিকিৎসা না পেয়ে গত এক বছরে খামারীদের প্রায় ২০ টি গরু মারা গেছে। ৩০ টাকার গরু প্রজনন ভ্যাকসিন ৫০০ টাকা নেন। বাড়ী বা খামারে গিয়ে ভ্যাকসিন দিলে আদায় করেন ১৫শ থেকে ২ হাজার টাকা। রেজিষ্ট্রেশন ভুক্ত খামারীদের সরকারী সুযোগ সুবিধা না দিয়ে নিয়ম ভহির্ভূত কাজ করেন। উপজেলা ডেইরী ফার্ম এ্যাসোসিয়েশন সভাপতি মোঃ ইদ্রিস মিয়া জানান, ব্যাংক -এনজিও থেকে ঋন নিয়ে গরু খামার করা প্রতিষ্ঠান গুলো উপজেলা প্রানী সম্পদ (পশু হাসপাতাল) কর্মকর্তা ডাঃ পলাশ সরকারের সেচ্ছাচারিতায় ধ্বংসের মুখে পড়েছে। জেলা কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দিয়েও কোন প্রতিকার পাইনি। এ বিষয়ে উপজেলা প্রানী সম্পদ ও ভেটেরিনারি হাসপাতাল কর্মকর্তা ডাঃ পলাশ চন্দ্র সরকার বলেন, আমার উপস্থিতি অনুপস্থিতি থাকার বিষয় কর্তৃপক্ষ দেখবেন, আপনারা নয়। ভোলা জেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ ইন্দ্রজিৎ মন্ডল বলেন, খামারীদের অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে দেখা হবে। ফারহান-উর-রহমান সময় তজুমদ্দিন ভোলা প্রতিনিধি তারিখ ০৪-০২-২০২১ মোবাইল নাম্বার ০১৭২৫২০১৫০০