ঢাবিতে মুখোমুখি ছাত্র অধিকার পরিষদ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ এবং মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের একাংশের নেতাকর্মীরা। এতে সেখানে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

দীর্ঘক্ষণ এই অবস্থান থাকলেও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। পরে নিজের নিরাপত্তা চাইতে শাহবাগ থানায় যান ডাকসুর ভিপি নূরুল হক নূর। বুধবার দুপুরে উভয় পক্ষই রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান নিয়ে পাল্টাপাল্টি স্লোগান ও উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় করে।

এর আগে গতকাল মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীর মারধরের আহত হওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা করবেন নূর। সরেজমিনে দেখা গেছে, দুপুরে মুখোমুখি অবস্থান শেষে ছাত্র পরিষদের নেতাকর্মীরা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি টিএসসি থেকে শুরু হয়ে শহীদ মিনার প্রদক্ষিণ করে গণিত ভবন, দোয়েল চত্বর হয়ে ফের রাজু ভাস্কর্যে এসে শেষ হয়। এতে প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

মিছিলে তারা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের একাংশের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। বিক্ষোভ শেষে রাজু ভাস্কর্যে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, ‘আত্মরক্ষা নিজেদেরকে করতে হবে। দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্বের প্রশ্নে আমাদের লড়াই করতে হবে। ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলতে গিয়ে আর কোনো আবরারকে যেন মৃত্যুবরণ করতে না হয়, সেজন্য বাংলার ছাত্র সমাজকে সোচ্চার হতে হবে।

ডাকসুর ভিপি নূর বলেন, জীবনের শেষ রক্তবিন্দু থাকা পর্যন্ত ভারতীয় আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাবো।’ তিনি আরো বলেন, ‘স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর মুক্তিযুদ্ধের চেতনার নাম ধারণ করে যারা ভণ্ডামি করে বেড়াচ্ছে, দেশের মুক্তিযুদ্ধকে বিকৃত করে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে যারা মানুষের ওপর হামলা-মামলা চালাচ্ছে তাদের ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে। এই গণতন্ত্র, বিচারহীনতা দেখার জন্য ৩০ লাখ শহীদ জীবন দেয়নি।’

এর আগে গতকাল ভারতীয় শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে ও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রতি সংহতি জানাতে গিয়ে দু’দফা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ও ভিপি নূরের সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছিল।