ঢাকায় করোনা রোগী ১০০০ এর বেশি, অন্য জেলায় বাড়ছে দ্রুত

করোনাভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরো সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এ রোগে আক্রান্ত হয়ে ৯১ জনের মৃত্যু হলো। এ ছাড়া নতুন করে আরো ৩১২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট দুই হাজার ৪৫৬ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

এদিকে ঢাকায় করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এক হাজার ১৭ জন হয়েছে। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকায় ৯৭৪ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। অন্যদিকে রাজধানীর বাইরে অন্তর্ভুক্ত ঢাকার উপজেলাগুলোয়  আরো ৪০ জন শনাক্ত হয়েছে।

এর পাশাপাশি অন্য জেলায় দ্রুত গতিতে বাড়ছে করোনা রোগী। এর মধ্যে ঢাকার পাশের জেলা নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরেও অনেক রোগী শনাক্ত হয়েছে। নারায়ণগঞ্জে এ পর্যন্ত ৩৮৬ জন ও গাজীপুরে ১৭৩ জন আক্রান্ত হয়েছে।

আজ  রোববার সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) ওয়েবসাইট থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যায়, ঢাকার পাশের জেলা নরসিংদীতে করোনা রোগীর সংখ্যা ১০৫ জন হয়েছে। ঢাকার পাশের দুই জেলা মুন্সীগঞ্জে ৩৩  আর মানিকগঞ্জে ছয়জন আক্রান্ত হয়েছে। ঢাকা বিভাগের জেলা কিশোরগঞ্জে ৭৭ জন, মাদারীপুরে ২৬ জন, গোপালগঞ্জে ২১ জন, টাঙ্গাইলে ১০ জন, শরীয়তপুরে সাতজন, রাজবাড়ীতে সাতজন ও ফরিদপুরে চারজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম জেলায় ৩৯ জন, লক্ষ্মীপুরে ২১ জন, কুমিল্লায় ১৯ জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১১ জন, চাঁদপুরে আটজন, নোয়াখালীতে তিনজন, ফেনীতে দুজন,কক্সবাজারে একজন ও বান্দরবানে একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

সিলেট বিভাগের সিলেট জেলায় তিনজন, মৌলভীবাজারে দুজন, হবিগঞ্জে একজন ও সুনামগঞ্জে একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

রংপুর বিভাগের রংপুর জেলায় তিনজন, গাইবান্ধায় ১২ জন, দিনাজপুরে ১০ জন, নীলফামারীতে নয়জন, ঠাকুরগাঁওয়ে পাঁচজন, কুড়িগ্রামে দুজন, লালমনিরহাটে দুজন ও পঞ্চগড়ে একজন আক্রান্ত হয়েছে।

খুলনা বিভাগের খুলনায় একজন,যশোরে একজন, নড়াইলে দুজন, বাগেরহাটে একজন ও চুয়াডাঙ্গা জেলায় একজন আক্রান্ত হয়েছে।

ময়মনসিংহ বিভাগের ময়মনসিংহ জেলায় ২১ জন, জামালপুর জেলায় ২০ জন, নেত্রকোনায় ১৪ জন ও শেরপুর জেলায় ১১ জন আক্রান্ত হয়েছে।

বরিশাল বিভাগের বরিশাল জেলায় ২১ জন, বরগুনা জেলায় ১০ জন, ঝালকাঠিতে চারজন, পিরোজপুরে চারজন ও পটুয়াখালীতে দুজন রোগী আক্রান্ত হয়েছে।

এ ছাড়া রাজশাহী বিভাগের রাজশাহী জেলায় চারজন, জয়পুরহাটে দুজন, পাবনায় একজন ও বগুড়ায় একজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।