ডুমুরিয়া বরাতিয়া গ্রামে অসহায় নারীর বসত ঘর ভাংচুর, থানায় অভিযোগ

জাহাঙ্গীর আলম (মুকুল), ডুমুরিয়া খুলনা প্রতিনিধি: খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজলার বরাতিয়া গ্রামে আব্দুল কুদ্দুস শেখের স্ত্রী খাদিজা খাতুনের জমিতে নির্মিত বসত ঘর পুর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষরা ভাংচুর করেছে। রোববার সন্ধ্যায় ওই এলাকার প্রভাবশালী মো: হায়দার গোলদার ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা খাদিজা খাতুনের বসতঘর ভাংচুর করে।

বসত ঘর ভাংচুরের সময়ে বাঁধা দিতে গেলে খাদিজা খাতুনের ভাই বিল্লাল হোসেনসহ অন্যরা এগিয়ে আসলে তাদেরকে মারপিট ও হুমকি ধামকি প্রদান করে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায় কুলবাড়িয়া বরাতিয়া মৌজাস্থ এস এ খতিয়ান নং- ১৯৫৫, বি,আর, এস খতিয়ান নং- ১৩২৮, এস এ দাগ নং- ১২২১, বি, আর এস দাগ নং- ২৮৭৬, জমি- ০.২৮ একর এর মধ্য হতে .০১৭৩২ একর জমি নিয়ে বরাতিয়া গ্রামের মৃত রিয়াজ উদ্দীন গাজীর ছেলে মো: হায়দার আলী গাজী গংদের সাথে পূর্ব বিরোধ রয়েছে।

যা নিয়ে ডুমুরিয়া থানা সহকারী জজ আদালতে দেঃ-১২৩/১৯ নং মামলা চলমান রয়েছে। কিন্তু সেসব কিছুর তোয়াক্কা না করে হায়দার গাজী গং বার বার জমি থেকে খাদিজাকে উচ্ছেদ করার চেষ্টা করে। তারই অংশ হিসেবে রোববার সন্ধ্যায় খাদিজা খাতুনের অনুপস্থিতির সুযোগে মো: হায়দার গোলদার, আইয়ুব গোলদার, আজিবার সরদার, আনিচুরগোলদার, শাহিদুল গোলদার, শরিফুল সরদার, বাহারুল গোলদার, কবির গোলদার, আলামিন গোলদার, সিরাজ ফকির,

মিকাইল ফকির, বাবলু শেখসহ আরও ৫/৭ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল লাঠিসোটা, দা, কুড়াল নিয়ে টিনের তৈরি ঘর ভাংচুর ও ঘরে থাকা মূল্যবান জিনিসপত্রের ক্ষতিসাধন করে। যার ক্ষতির পরিমান আনুমানিক দেড় লক্ষ টাকা। এ বিষয়ে ডুমুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: আমিনুল ইসলাম বলেন,

রোববার রাতে বরাতিয়া গ্রামে একটি বিরোধপূর্ণ জমি নিয়ে ভাংচুরের ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ কর্মকর্তা পাঠানো হয়। পুলিশ পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। এ ঘটনায় মোসা: খাদিজা বেগম একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে