ডুমুরিয়ায় ভুয়া ফেইসবুক আইডির ছড়াছড়ি অতিশীগ্রই মাঠে নামবে পুলিশ

জাহাঙ্গীর আলম (মুকুল), ডুমুরিয়া উপজেলা প্রতিনিধি খুলনা: খুলনা ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর এলাকায় বিভিন্ন নামে ভুয়া ফেইসবুক আইডির ছড়াছড়ি। খুলনা জেলা পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ বলেছেন,ভুয়া ফেইসবুক আইডি ব্যাবহার কারিদের গ্রেফতারে করতে শীগ্রই মাঠে নাববেন পুলিশ। চুকনগর এলাকায় ভুয়া ফেইসবুক আইডি সৃষ্টি করে রাষ্ট বিরোধী বক্তব্য এবং সাধারন মানুষের মাঝে ত্রাস সৃষ্টি করে চলেছেন, একটি অপরাধ সিন্ডিকেট। এনিয়ে জনমনে নানা শংঙ্কা দেখা দিয়েছে।
স্থানীয় সুত্রেজানা গেছে, খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর এলাকায় ভুয়া ফেইসবুক আইডি সৃষ্টি করে সাংবাদ কর্মী/সংবাদ পত্র,বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরের নাম ব্যাবহার করে এক শ্রেনির অপরাধী চক্র বিভিন্ন অপরাধ মুলক কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। দীর্ঘদিন গোপনে থাকলেও এখন তা সমাজে প্রকাশ পাচ্ছে। ফলে সাধারন মানুষ, জনপ্রতিনিধি এবং পেশাগত সংবাদকর্মীরা রয়েছে চরম আতংঙ্কে। যে সকল ভুয়া আইডি ব্যাবহার হচ্ছে তার অধিকাংশ সাংবাদিক/ সংবাদ পত্র নামে চালানো হচ্ছে। ইতোপূর্বে বিভিন্ন সময়ে এ সকল অপরাধী সিন্ডিকেট মাদকসহ বিভিন্ন পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়।
এ সংক্রান্ত অপরাধীদের বিরোদ্ধ প্রিন্ট মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। তার জের ধরে এবং সম্প্রতি আটলিয়া ইউনিয়নে চাল বিতরণে অনিয়মের কথা তুলে বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমন রোধে সরকারি নীতিমালা লকডাউন ভঙ্গকরে অযৌত্তিক জনমসাগম ঘটিয়ে মিছিল সহকারে ইউনিয়ন পরিষদ ঘেরাও করে একটি ষড়যন্ত্রকারী চক্র। যাহা খুলনা থেকে প্রকাশিত ” দৈনিক পূর্বাঞ্চল” পত্রিকায় বস্তুনিষ্ট সংবাদ প্রকাশিত হয়। উক্ত সংবাদ কাটিং পোষ্ট দেয় সময়ের খবরের চুকনগর প্রতিনিধি,সাংবাদিক শেখ আব্দুস সালাম।
এর ফলে গত শনিবার একটি ভুয়া আইডি “অপরাধ তথ্য চিত্র” নামে ব্যাবহৃত অপরাধী চক্র পেশাদার সাংবাদিক শেখ আব্দুস সালামের আইডিতে প্রবেশ করে ছবি সংগ্রহ করে। এরপর উক্ত ছবি বিকৃতি করে অকথ্য বক্তব্য লেখা দিয়ে পোষ্ট দেয়। এছাড়া আটলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ও আটিলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাডঃ প্রতাপ কুমার রায় কে “অপরাধ তথ্যচিত্র” ওই ভুয়া আইডিসহ নামে- বে-নামের একাধিক আইডি থেকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ বক্তব্য লিখে পোষ্ট এবং বিভিন্ন ভাবে কমেন্ট করা হয়েছে। ফলে সন্মানিত ও সাধারন মানুষের মানহানির ঘটনা ঘটে চলছে বলে অভিযোগ করেন ইউপি চেয়ারম্যানসহ ভুক্তভোগী মহল।
প্রকৃতপক্ষে এসকল ভুয়া আইডি গুলো আদৌ কোন সংবাদ কর্মী নন। তারা চোর, ডাকাত, চোরাকারবারি, মাদক ব্যাবসায়ির গড ফাদার। পুলিশের চোখ ফাঁকি দিতে এসকল অপরাধী চক্র অভিনব কৌশলে ভুয়া ফেইসবুক আইডি ব্যাবহার করে চলছেন বলে একাধিক অভিযোগ রয়েছে।এমনকি পুলিশ কর্মকর্তাদের বন্ধু তালিকায় রয়েছে এসকল ভুয়া আইডি। এতে যেন সাধারন মানুষ আরও বেশি আতংকিত হতে পারে। এসকল ভুয়া আইডির যারা এ্যাডমিন রয়েছে তাদের খুজে বের করলে মাদক কারবারি, চুরি ছিনতাই ডাকাতিসহ অনেক রোমহর্ষক কাহিনী উদঘাটন হবে বলে অভিমত ব্যাক্ত করেন, ভুক্তভোগী মহল।
এ প্রসংঙ্গে খুলনা জেলা পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ এ প্রতিবেদককে জানান, যে ব্যক্তি ভুয়া আইডি ব্যাবহার করে রাষ্ট বিরোধী এবং সাধারন মানুষের মাঝে বিব্রান্তি সৃষ্টি করে চলেছেন, সে সকল আইডি সনাক্ত পূর্বক শীগ্রই গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নেয়া হবে।