ডিবি পুলিশের অভিযানে সিলেটে ফেনসিডিল ৪১২ বোতল ও কারসহ আটক ২

এনাম রহমান, সিলেট প্রতিনিধি:  সিলেট জকিগঞ্জ থেকে প্রাইভেটকারে করে নিয়ে আসা বিশাল ফেনসিডিলের চালান আটক করেছে সিলেট মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এ সময় আটক করা হয়েছে দুই মাদক ব্যবসায়ীকে। জব্দ করা হয়েছে ৪১২ বোতল ফেনসিডিল বহনে ব্যবহৃত দু’টি প্রাইভেটকারও।

সোমবার দিবাগত রাত পোনে ৩টার দিকে শহরতলি শাহপরাণ থানাধীন খাদিমপাড়ার বহর আল বারাকা এলাকা থেকে প্রাইভেটকারসহ ফেনসিডিলের চালান জব্দ ও মাদক ব্যবসায়ীদের আটক করা হয়। জব্দ হওয়া চালানে ৪১২বোতল ভারতীয় তৈরী ফেনসিডিল রয়েছে। আটককৃতরা হচ্ছে জকিগঞ্জ উপজেলার খলাছড়া ইউনিয়নের নরসিংহপুর এলাকার মৃত কলমদর আলীর ছেলে ও বর্তমানে খাদিমনগরের মংলিরপাড়ের নেছাড়াবাদ হাউজিংয়ের বাসিন্দা মো. জালাল আহমদ (৩২) এবং খাদিমপাড়ার বহর পশ্চিম এলাকার মৃত সৈয়দ শফিকুল ইসলামের ছেলে মো. কালাম (৪২) জানা গেছে ওরা পেশাদার মাদকব্যবসায়ী।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে এসআই মাহাবুর আলম মন্ডল বাদি হয়ে শাহপরাণ (রহঃ) থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করেছেন। মঙ্গলবার (১০জুন) দুপুরে গণমাধ্যমে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া এন্ড কমিউনিটি সার্ভিস) মো. জেদান আল মুসা প্রেরিত এক সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়- গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক শিবেন বিশ্বাসের নেতেৃত্বে এসআই মাহবুবুর আলম মন্ডল, এসআই মো. রফিকুল ইসলাম, এএসআই ভুলন চন্দ্র দেব ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে ৪১২ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করেন।

জব্দকৃত ফেনসিডিলের প্রতিটির দাম ১৫শ’ টাকা ধরে এ চালানের বাজার মূল্য দেখানো হয় ৬লাখ ১৮হাজার টাকা। এ ফেনসিডিলের চালানটি জকিগঞ্জ ভারতীয় সিমান্ত দিয়ে চুরা কারবারিরা দেশে নিয়ে আসে। জানা গেছে মাদক ব্যবসাহীদের জন্য সিলেট জকিগঞ্জ রোড নিরাপদ এই চালান প্রাইভেটকারে করে নিয়ে আসেন মো. জালাল আহমদ। তাকে সহযোগিতা করেন তার গাড়ি চালক সবুজ মিয়া (৪০) ও মো. কালাম মিয়া অভিযানকালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গাড়ি চালক সবুজ মিয়া পালিয়ে যায়। তাকে ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।