ঠিক সময়ে কাজ শেষ না হলে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে: আ.জ.ম নাছির উদ্দীন

মোঃরাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করা না হলে এবং নিম্নমানের ও ত্রুটিপূর্ণ কাজ বুঝিয়ে দেয়া হলে ঠিকাদারদের কালো তালিকাভুক্ত করে তাদের লাইসেন্স বাতিল করা হবে।

কাজের গতি কোন অবস্থাতেই যাতে শ্লথ না হয় এবং জোড়াতালি দিয়ে কাজ বুঝিয়ে দেয়ার প্রবণতার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীদের দায়িত্বশীল থাকতে তিনি নির্দেশনা দেন। তিনি বলেন, “কোন কোন ঠিকাদার কাজের চুক্তির সময়সীমা লঙ্ঘন করে দীর্ঘ সুত্রতার আশ্রয় নিচ্ছে। এর ফলে জনদূর্ভোগ বাড়ছে এবং সরকার ও সিটি কর্পোরেশনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা হচ্ছে। আমি বার বার সতর্ক করে দেয়ার পরও কোন কোন ঠিকাদার এক্ষেত্রে চরম উদাসীনতা প্রদর্শন করে যাচ্ছেন এবং নানা ধরনের অযৌক্তিক অজুহাত খাঁড়া করছেন। যৌক্তিক কারণ থাকলে তা গ্রহণ করার মানসিকতা আমার আছে।”

কিন্তু অযৌক্তিক সময়ক্ষেপণ করে কাজ ঝুলিয়ে রাখা এবং নিম্নমানের কাজ বুঝিয়ে দেয়ার প্রবণতা সহ্যের সীমা হারিয়েছে। মেয়র নগরীর পোর্ট কানেকটিং সড়কের কাজ আগামী নভেম্বর মাসে এবং নগরীর ড্রেন,মিডআইল্যান্ড সহ বাকি সড়কগুলোর অসমপূর্ণ কাজ সমূহ জুলাই মাসের মধ্যে শেষ করার জন্য কড়া নির্দেশনাও দেন মেয়র। এর পর আর কোন ধরনের ওজর-আপত্তি গ্রাহ্য করা হবে না এবং সংশ্লিষ্টদেরকে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে বলে কঠোর হুঁশিয়রিী উচ্চারণ করেন।

এসময় চসিক প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমেদ, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আনোয়ার হোছাইন, মনিরুল হুদা, আবু ছালেহ, কামরুল ইসলাম, নির্বাহী প্রকৌশলী ফরহাদুল আলম, আবু সাদাত মোহাম্মদ তৈয়ব, অসিম বড়–য়া, আবু সিদ্দিক, বিপ্লব দাস, সহকারি প্রকৌশলী মোহাম্মদ আশিকুর রহমান, জাইকার মোহাম্মদ মাহবুবুল আলম, ঠিকাদার মোহাম্মদ মনজুর আলম, আনোয়ার হোসেন, মোহাম্মদ ফরহাদুল ইসলাম, আশীষ মহাজন, নজরুল ইসলাম, মোহাম্মদ রোকন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।