ঠাকুরগাঁওয়ে ত্রাণের দাবিতে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ; এডিসি’র আশ্বাসে প্রত্যাহার

জয় মহন্ত অলক, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ে ত্রাণের দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী।

সোমবার বিকেলে ঠাকুরগাঁও টাঙ্গন ব্রীজসংলগ্ন এলাকায় পীরগঞ্জ-হরিপুর আঞ্চলিক সড়কে জলেশ্বরীতলা ও হঠাৎবস্তির কয়েকশত কর্মহীন মানুষ ত্রাণের দাবিতে সামািজক দূরত্ব বজায় না রেখেই সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ প্রদর্শণ করেন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নূর কুতুবুল আলম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাকসুদা আক্তার মাসুসহ সদর থানার পুলিশ ও আনছার ব্যাটালিয়ন সদস্যরা। তারা ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভ করা নারী-পুরুষদের নিবৃত করার চেষ্টা করেন।

পরে অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক(সার্বিক) নূর কুতুবুল আলমের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে অবরোধ তুলে নেন বিক্ষোভকারিরা।

ঘন্টাব্যাপি এই অবরোধে বিক্ষোভকারিদের অভিযোগ, করোনা পরিস্থিতির কারণে সরকারের নির্দেশ মোতাবেক দীর্ঘ দিন কর্মহীন অবস্থায় তারা নিজ বাড়িতে অবস্থান করছেন। সরকার থেকে বিভিন্ন স্থানে পর্যাপ্ত ত্রাণ বিতরণ করার কথা বলা হলেও তারা আজ পর্যন্ত কোন ত্রাণ পান নাই। স্থানিয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের কাছে ধর্ণা দিয়েও কোন কাজ হচ্ছে না। তাই ক্ষুধার জ্বালায় বাধ্য হয়ে সড়কে অবস্থান নিয়েছেন তারা।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নূর কুতুবুল আলম জানান, সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক জেলা প্রশাসন ধারাবাহিক ভাবে সকল দরদ্রি কৃষক, দিনমজুর ও কর্মহীন মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। স্থানিয় জনপ্রতিনিধি ও সমাজের গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের সাথে নিয়ে বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। ক্রমান্বয়ে সকল হতদরিদ্র ব্যাক্তি যেন সরকরি ত্রাণ পায় সে লক্ষে জেলা প্রশাসন কাজ করছে। এছাড়া যে সমস্ত ব্যাক্তির চাহিদা থাকলেও লোক লজ্জায় ত্রাণ নিতে পারছেন না তাদের জন্য হট লাইন চালু করা হয়েছে। অনেকে ফোন করছেন, তাদের গোপনে ত্রাণ পৌছিয়ে দেয়া হচ্ছে।