‘ট্রেনে ৬ ঘন্টায় ঠাকুরগাঁও থেকে ঢাকায়’

আট থেকে দশ ঘন্টার পরিবর্তে মাত্র ৬ ঘন্টায় ঠাকুরগাঁও থেকে ঢাকায় পৌঁছানো যাবে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।

বঙ্গবন্ধু সেতু থেকে বগুড়া পর্যন্ত সরাসরি রেল যোগাযোগ না থাকায় উত্তরের জেলাগুলোতে পৌঁছাতে যাত্রীতে অনেক পথ ঘুরে যেতে হয় এতে ভোগান্তির পাশাপাশি বেশি সময় প্রয়োজন হয়।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর কাজ শুরু হয়েছে।  খুব শিগগিরই বগুড়া থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত নতুন রেললাইন তৈরি হবে।

এর ফলে, ঠাকুরগাঁও থেকে ঢাকা যাতায়াতকারী যাত্রীরা ৮ থেকে ১০ ঘন্টার পরিবর্তে পাঁচ থেকে ছয় ঘন্টায়

ঢাকা-ঠাকুরগাঁও যাতায়াত করতে পারবেন বলে মন্তব্য করেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।

এছাড়া জয়দেবপুর থেকে ঈশ্বরদী পর্যন্ত আরেকটি নতুন লাইন স্থাপন করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

সোমবার ১ কোটি ৭৬ লাখ ৭৯ হাজার টাকা ব্যায়ে  (২২ ফেব্রুয়ারি) ঠাকুরগাঁও রোড রেলস্টেশনের উঁচু ও বর্ধিত প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন রেলমন্ত্রী সুজন।

তিনি আরও জানান, ২০২২ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে সারা দেশের সঙ্গে কক্সবাজারের রেল যোগাযোগ স্থাপনের চেষ্টা চলছে।

রেল যোগাযোগের আওতায় আনতে পারলে কক্সবাজারের সঙ্গে বাংলাদেশের যেকোনও অঞ্চলের সঙ্গে নিরবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ গড়ে উঠবে।

এছাড়া চলতি বছরের মধ্যে না হলেও আগামী বছরের জুনের মধ্যে মংলা বন্দর রেল সুবিধার আওতায় আসবে বলেও জানান সুজন।

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সমালোচনা করে মন্ত্রী বলেন, ‘তারা ক্ষমতায় এসে রেলওয়ের ১০ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ছাঁটাই করে।

সে সময়  রেলওয়ে খাতকে ধ্বংস করা হয়েছিল।’