টেবিলের শীর্ষে থেকেই প্লে অফ নিশ্চিত করতে চায় প্লাঙ্কেট

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে মাত্র একটি ম্যাচ খেললেও টেবিলের শীর্ষে থেকেই প্লে-অফ নিশ্চিত করার প্রত্যাশা ইংলিশ পেসার লিয়াম প্লাঙ্কেটের। তরুণ পেসার মেহেদী রানার বোলিংয়ের প্রশংসা করেছেন বিশ্বকাপ জয়ী এই বোলার। চট্টগ্রামে উইকেট ভালো হলেও ঢাকায় পেস বোলারদের জন্য থাকবে বাড়তি চ্যালেঞ্জ, বিশ্বাস প্ল্যাঙ্কেটের।

চট্টলার দল ফিরেছে মিরপুরে। ঘরের মাঠে শেষটা ভালো হয়নি। তাতে কি! আসরে খেলা ৭ ম্যাচের ৫টিতেই জয় বাগিয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। নামের পাশে ১০ পয়েন্ট নিয়ে বসে আছে চেয়ারে। বড়দিনের আগে তাই বেশ খোশমেজাজে চ্যালেঞ্জার্সরা।

বিশ্রামের সুযোগ পাননি প্লাঙ্কেট। উড়ে এসে মাত্র ৬ ঘন্টা পরেই নেমেছেন মাঠে। বঙ্গবন্ধু বিপিএলে নিজের প্রথম ম্যাচে শুরুটা মনমতো না হলেও দলের সামর্থ্য বুঝে গেছেন বিশ্বকাপের ফাইনাল মাতানো এই ইংলিশ। জানিয়ে দিলেন চ্যালেঞ্জার্সদের লক্ষ্য।

লিয়াম প্লাঙ্কেট বলেন,  এখানে পৌঁছেই খেলতে নেমে গেছি। কিছুটা ধকল তো ছিলোই। ম্যাচটা হেরেছি, তবে দলে দারুণ কিছু ক্রিকেটার আছে। আগের ম্যাচগুলোতে তারা সক্ষমতার প্রমাণও দিয়েছে। তাই টেবিলের শীর্ষে থেকেই পরের পর্বে যেতে চাই আমরা।

বিপিএলে টানা দুই ম্যাচে ম্যাচসেরা মেহেদী হাসান রানা। পেস বিভাগে চট্টগ্রামকে দারুণ সার্ভিস দিচ্ছেন মেহেদী হাসান রানা।নজর কেড়েছেন সবার। প্লাঙ্কেটের চোখে কেমন লেগেছে এই লোকাল বয়কে?

লিয়াম প্লাঙ্কেট আরো বলেন,  প্রত্যেক ম্যাচেই সে বল হাতে অবদান রাখছে। নতুন বলে সে দারুণ কার্যকরী। আর পুরানো বলের ব্যবহারটা ভালোভাবে করতে পারে। আর পরপর দুটো ম্যাচে সে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ। তাও চট্টগ্রামের মতো ব্যাটিং উইকেটে! এমন একজন বোলার যেকোনো দলই পেতে চাইবে।

চট্টলায় ছুটেছে চার-ছক্কার ফুলঝুরি। বেশিরভাগ ম্যাচেই স্কোরবোর্ডে পেরিয়েছে ২’শর ঘর। ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে ব্যাটিং উইকেট থাকাটা স্বাভাবিক, তবে মিরপুরে হোম অব