টাঙ্গাইলে সিআইডি কর্তৃক বাসাইল থানার চাঞ্চল্যকর আব্দুলাহ হত্যা মামলার মূল আসামী গ্রেফতার

মোঃ রাশেদ খান মেনন (রাসেল), টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলে বাসাইল থানার চাঞ্চল্যকর আব্দুলাহ হত্যা মামলার মূল আসামী শাহীন মিয়া (৪০)কে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি’র চৌকস একটি টিম। টাঙ্গাইল জেলা সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রিয়াজুল হক এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই প্রীতেশ তালুকদার জেলা সিআইডি’র একটি বিশেষ টিম নিয়ে গ্রেফতার অভিযান পরিচালনা করে।

নাটোর জেলার গুরুদাসপুর থানা পুলিশের সহায়তায় জনৈক নুরু মিয়ার বসত ঘর হতে কৌশলে আসামী শাহীন মিয়াকে গ্রেফতার করা হয় । টাঙ্গাইল জেলা সিআইডির চৌকস কর্মকর্তা এসআই প্রীতেশ তালুকদার বলেন, বিশেষ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রিয়াজুল হক মহোদয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে বাসাইল থানার মামলা নং ০২ তারিখ, ০৮\০৫\২০২০ খ্রিঃ ধারা ৩২৩\৩২৬\ ৩০২\৫০৬ \১১৪\৩৪ পেনাল কোড এর এজাহার নামীয় আসামি শাহীন মিয়া (৪০)কে ১১\০৭\২০২০ খ্রিঃ রাত অনুমান ০৯.৩৫ ঘটিকার সময় গ্রেপ্তার করি। টাঙ্গাইল জেলা সিআইডির একটি বিশেষ টিম নাটোর জেলার গুরুদাসপুর থানাধীন নাজির পুর গ্রামে, গুরুদাসপুর থানা পুলিশের সহায়তায় গ্রেফতার অভিযান পরিচালনা করে জনৈক নুরু মিয়ার বসত ঘর হইতে আসামি শাহিন মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার কৃত আসামি শাহীন মিয়া বিজ্ঞ আদালতে ফৌঃকাঃবি ১৬৪ ধারা মোতাবেক স্বেচ্ছায় দোষ স্বীকারোক্তি মুলক জবানবন্দি প্রাদন করেছে। ঘটনার বিবরনে জানা যায়, গত ৭\৬\২০২০ তারিখ সন্ধ্যা অনুমান ৭.৩০ ঘটিকার সময় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এর সভাপতিত্বে পাওনা টাকা নিয়ে শতাধিক মানুষের উপস্থিতিতে শালিস চলাকালীন সময়ে সালিসদারদের সামনে এনামুল হক লিটন’সহ আসামী শাহীন প্রকাশ্য শালিসে আব্দুলাহর উপর আক্রমণ করে।

উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে আব্দুল্লাহ নৃশংসভাবে খুন হয়। মামলাটি থানা পুলিশ তদন্ত কালীন সময়ে এজাহার নামীয় আসামীগণ প্রভাবশালী হওয়ার দরুণ এবং গ্রেফতার না হওয়ায় নিহতের পরিবার ন্যায় বিচার হইতে বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কায় ছিল। সিআইডি কর্তৃক আসামি শাহীন মিয়া গ্রেফতার হওয়ায় এবং ফৌঃকাঃবি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করাতে নিহত আব্দুলাহ এর পরিবার সহ এলাকায় জন মনে স্বস্তি ফিরে এসেছে।