ঝিনাইদহে বিট পুলিশিং প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

 নজরুল ইসলাম, (ঝিনাইদহ)প্রতিনিধি: “বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি” শ্লোগানে ঝিনাইদহে বিট পুলিশিং প্রশিক্ষণ কর্মশালা-২০২০ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুরে ঝিনাইদহ পুলিশ লাইন সেমিনার মঞ্চে এ বিট পুলিশিং প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি জেলা পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান (পিপিএম)।

এসময় জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কোর্টচাঁদপুর সার্কেল) মোঃ মোহাইমিনুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার (শৈলকুপা সার্কেল) মোঃ আরিফুল ইসলাম, ডিবি পুলিশের ওসি আনোয়ার হোসেন, সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান, কালীগঞ্জ থানার ওসি মাহফুজুর রহমান, হরিনাকুন্ডু থানার ওসি আব্দুর রহিম, মহেশপুর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম, কোর্টচাঁপুর থানার ওসি মাহবুব আলমসহ জেলার অন্যান্য ইন্সপেক্টর, সাব-ইন্সপেক্টর ও এএসআইসহ পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। বিট পুলিশিং কার্যক্রম ও বাড়ি বাড়ি পুলিশি সেবা পৌছে দিতে করনীয় সম্পর্কে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় মৌখিক ও প্রোজেক্টরের মাধ্যমে দিক নির্দেশনা প্রদান করেন পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান পিপিএম।

প্রশিক্ষণ কর্মশালায় তিনি উল্লেখ করেন, ঝিনাইদহ জেলায় ৬টি পৌরসভা ও ৬৭টি ইউনিয়ন পরিষদ এলাকাতে মোট ৮৫টি বিটে বিভক্ত করে ইতোমধ্যে বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু হয়েছে। প্রতি বিটে একজন এসআই বিট অফিসার ও একজন এএসআই সহকারী বিট অফিসার এবং দুইজন কনস্টেবল দায়িত্ব পালন করবে। এতে করে এলাকায় অপরাধ দমন ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

বিট এলাকায় খুন, ডাকাতি, দস্যুতা, নারী নির্যাতনসহ অন্যান্য অপরাধমূলক কর্মকান্ড ঘটলে বিট অফিসার তার টিম নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনে ও ক্ষতিগ্রস্থ বা ভিকটিমের পাশে দাঁড়াতে সক্ষম হবে। একদিকে যেমন আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকবে অন্যদিকে গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও এলাকায় অপরাধীদের তালিকা তৈরী, নজরদারী, চোরাচালানকারী, চিহ্নিত সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, মানবপাচারকারী, ভূমিদস্যু, নারী উত্যক্তকারী, জঙ্গীবাদের সাথে সম্পৃক্ত, সন্দেহভাজন ব্যক্তি, চোর, ডাকাত, ছিনতাইকারী ও অভ্যাসগত অপরাধীদের তালিকা তৈরী করবে। সেই সাথে তাদের গতিবিধির উপর নজরদারী করবে ও প্রয়োজনে আইনের আওতায় নিয়ে আসবে বলেই এই বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে।