ঝিনাইদহে করোনার ‘মারাত্বক বিস্তার’ বলছে মাগুরা জেলা প্রশাসন!

মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি: ঝিনাইদহে করোনার ‘মারাত্বক বিস্তার’ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এমন গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে মাগুরা জেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক আশরাফুল আলম স্বাক্ষরিত এ গণবিজ্ঞপ্তি জারী করা হয়। তবে ঝিনাইদহের স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, মাত্র ২১ জন আক্রান্ত হয়েছে যা মারাত্বক বলা যাচ্ছে না। আগামীতে আক্রান্ত হলে তখন হয়তো বলা যাবে।

মাগুরা জেলা প্রশাসনের দেওয়া গণবিজ্ঞপ্তিতে দেওয়া আছে ‘মাগুরার সীমান্তবর্তী জেলা নড়াইল, যশোর ও ঝিনাইদহে কোভিড-১৯ এর মারাত্বক বিস্তার লক্ষ্য করা যাচ্ছে। জেলার সীমান্তবর্তী সকল যোগাযোগ সড়ক বন্ধ আছে। এ জেলা অতি উচ্চ স্বাস্থ্য ঝুকিতে আছে।’

ঝিনাইদহ সম্পর্কে মাগুরা জেলা প্রশাসনের এক বিজ্ঞপ্তি জারী করায় ঝিনাইদহ সচেতন মহলের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সচেতন মহল বলছে, ঝিনাইদহে মাত্র ২১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এতে জেলায় ‘মারাত্বক বিস্তার’ কিভাবে বলা যায়। নড়াইল ও যশোরে কি হয়েছে তা আমরা জানি না তবে ঝিনাইদহ সম্পর্কে মাগুরাবাসীর কাছে এমন ধারণা জেলার মানক্ষুন্ন করে। তাছাড়াও ঝিনাইদহ সম্পর্কে মাগুরাবাসীর মাঝে আতংক সৃষ্টি হচ্ছে। ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন ডা: সেলিনা বেগম বলেন, ২১ জন আক্রান্ত হয়েছে এটা মারাত্বক বিস্তার বলা যাচ্ছে না। আগামীতে যদি আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়ে সেক্ষেত্রে বলা যাবে।

এ ব্যাপারে মাগুরা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক আশরাফুল আলমের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মাগুরার লোকজনকে ঘরে রাখার জন্য এমটি বলা হয়েছে। বিষয়টি আমাদের, আপনাদের না”।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আরিফ-উজ-জামান বলেন, ঝিনাইদহে করোনার মারাত্বক বিস্তার নেই। আমরা করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রেখেছি। সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত ও জনসমাগম এড়াতে নিয়মিত কাজ করছি। এখন পর্যন্ত মারাত্বক বিস্তার হয়নি।