জয়পুরহাটে মধ্যরাতে টর্নেডোর তাণ্ডব, সহস্রাধিক ঘরবাড়ি লণ্ডভণ্ড

ওমর আলী বাবু, জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া টর্নেডোর আঘাতে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে ২০ গ্রামের হাজারের বেশি ঘরবাড়ি। ভেঙে গেছে শত শত গাছ ও বৈদ্যুতিক খুঁটি। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় পনেরো হাজার হেক্টর বোরো ধান। বন্ধ হয়ে গেছে বিদ্যুৎ সরবরাহ। ক্ষতিগ্রস্ত সদর উপজেলার গ্রামগুলোর মধ্যে রয়েছে ধলাহার বিষ্ণুপুর, দোগাছী উত্তরজয়পুর, ভাদশাসহ ৪০টি গ্রাম।

ক্ষতিগ্রস্তরা জানান, রোববার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে হঠাৎ করে দক্ষিণ-পশ্চিম কর্নার থেকে প্রচণ্ড বেগে টর্নেডো আঘাত হানে। সেই সঙ্গে শুরু হয় অঝোর ধারায় বৃষ্টি। প্রায় আধাঘণ্টার স্থায়ী থাকে টর্নেডো।

উত্তরজয়পুর গ্রামের শামসুল আলম জানান, রাত ১১টা থেকে প্রায় ৪ ঘণ্টা ঝড় বৃষ্টিতে উত্তর জয়পুর গ্রামের ৫ শতাধিক গাছপালা ভেঙে গেছে। আম এবং লিচু পড়ে গেছে। অনেক বাড়ি ঘরের চাল উড়ে গেছে।

জয়পুরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন চন্দ্র রায় জানান, সদরের মোহাম্মদাবাদ ইউনিয়নে ক্ষতির পরিমাণ অনেক বেশি সেখানে ৫টি গবাদি পশু মারা গেছে। ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে কাজ চলছে। ক্ষতিগ্রস্তদের টিন, শুকনো খাবার এবং যাদের গবাদি পশু মারা গেছে তাদের নগদ অর্থ প্রদান করা হবে।

এদিকে সকালে ফায়ার সার্ভিসের দল এসে রাস্তা থেকে গাছ অপসারণ শুরু করলে ক্ষেতলালের প্রধান সড়কে যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনরায় চালু হয়। টর্নেডো শুরুর পর থেকে জয়পুরহাট জেলা শহরসহ ক্ষেতলালে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

তাৎক্ষণিকভাবে ঝড়ে ক্ষতির পরিমাণ কত হতে পারে জানতে চাইলে ইউএনও বলেন, ক্ষতির ব্যাপকতা এত বেশি যে নিরূপণ না করে তাৎক্ষণিকভাবে বলা সম্ভব নয়। তবে ক্ষতির সঠিক পরিসংখ্যান জানতে মাঠে তার লোকজন কাজ করছেন বলে জানান তিনি।