জয়পুরহাটে ভেজাল গুড় জব্দ ভ্রাম্যমান আদালতে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা

ওমর আলী বাবু, জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ জয়পুরহাটে ভেজাল গুড় তৈরি ও সংরক্ষনের অপরাধে ভোক্তা অধিকার আইনে পরিচালিত অভিযানে গুড় ব্যবসায়ী দুই জনের ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সোমাইয়া আক্তার ওই মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, জয়পুরহাট শহরের পূর্ব বাজারের গুড় পট্টিতে দীর্ঘদিন ধরে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ভেজাল গুড় বিক্রি করা হচ্ছে এমন খবরে অনুসন্ধান চালায় র‌্যাবের গোয়েন্দা বিভাগ। ভেজাল গুড় তৈরি ও সংরক্ষনের সত্যতা পেয়ে শনিবার বিকাল থেকে অভিযানে নামে র‌্যাব সদস্যরা। এ সময় মেসার্স ঘোষ ট্রেডার্সের মালিক গোপাল চন্দ্র ঘোষ (৫৫) ও আবু তালেব (৫৫) হাতে নাতে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতে সোপর্দ করা হলে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা ও জব্দকৃত ২২ হাজার ৬৯০ কেজি গুড় ধ্বংস করা হয়।

র‌্যাব-৫, জয়পুরহাট ক্যম্পর অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম এম মোহাইমেনুর রশিদের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সোমাইয়া আক্তার ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। সহযোগিতা করেন সদর উপজেলার স্বাস্থ্য বিভাগের স্যানিটারী ইন্সপেক্টর নাজমুল হোসেন। করোনা পরিস্থিতিতে জনস্বাস্থ্য ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত কল্পে র‌্যাব সদস্যরা কাজ করছে বলে জানান, র‌্যাব-৫, জয়পুরহাট ক্যাম্পর অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম এম মোহাইমেনুর রশিদ। ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সোমাইয়া আক্তার বলেন,

গুড়ের আড়তে গিয়ে দেখা যায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। সেই সঙ্গে নষ্ট গুড়ও মজুদ করা হয়েছে। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইন ২০০৯ এর ৫৩ ধারায় আবু তালেবের ১৫ হাজার ও গোপাল চন্দ্র ঘোষের ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এই গুড় জনস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক হুমকি উল্লেখ করে গুড় কি পরিমান ভেজাল এবং কেমিক্যাল মেশানো হয়েছে তা পরীক্ষার জন্য গুড়ের নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবরেটরীতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।