জীবন রক্ষাকারী পণ্য যখন রোগের কারণ পিপিই, মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, গ্লাভস

এনাম রহমান, সিলেট জেলা প্রতিনিধি:  করোনা ভাইরাসের মতো জীবাণু থেকে রক্ষার অন্যতম হাতিয়ার হ্যান্ড স্যানিটাইজার, যা ব্যবহারে হাত জীবাণুমুক্ত রাখা যায়। কিন্তু দুংখজনক হলে ও সত্য এই স্যানিটাইজার নকল করে বাজারজাত করছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। ওরা বিভিন্ন কোম্পানির নাম ব্যবহার করে এসব নকল হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিক্রি করছে মুদির দোকান, ফার্মেসি ও ফুটপাতসহ বিভিন্ন দোকানে।

এসব নকল পণ্য ব্যবহারের কারণে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ তো দূরের কথা, উল্টো সংক্রমণ আরও বেশি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। বিশেষজ্ঞদের মতে এসব পণ্য ব্যবহার করে অনেকে ভাবতে পারেন তিনি সুরক্ষিত আছেন। কিন্তু নকল পণ্য ব্যবহারের কারণে মূলত তিনি ‘ফলস সিকিউরিটি’তে থাকবেন। যা সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেয়। এবং ব্যবহারকারীর হাতে এনার্জি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে বেশি।

সিলেটের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, নগরী ও বিভিন্ন উপজেলা শহরে প্রায় মোদির দোকান, ফার্মেসি ও ফুটপাতে কোনায় কোনায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক, ফেসশিল্ডসহ নানা ধরণের সুরক্ষা সামগ্রীর পসরা সাজিয়ে বসে আছেন বিক্রেতারা। তাৎক্ষণিকভাবে আসল ও নকল হ্যান্ড স্যানিটাইজারের পার্থক্য বোঝার কোনও উপায় নেই। দেখে মনে হবে সবই আসল, প্রতিষ্ঠানের নাম, ব্যবহৃত উপাদান সবই উল্লেখ রয়েছে এসব স্যানিটাইজারের মোড়কে।

এ ছাড়া বোতল ও তরলের রঙ দেখেও এগুলোকে চট করে নকল বলে শনাক্ত করা যায় না। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে সুদু সিলেট নয় সারা দেশের অসাধু ব্যবসায়ীরা তথপর হয়ে বিভিন্ন কৌশলে অবৈধ মুনাফা অর্জন করছে অনেকেই আবার দেখা গেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ব্যবহার করে নিজেদের মতো করে প্রচার করছেন, তাই সাধারণ মানুষ আরো সাবধান হওয়া উচিত এসব নকল পর্ণ ক্রয় করা থেকে বিরত থাকুন।