জার্মানি-স্পেন ম্যাচ নাটকীয় ড্র

বিগ ম্যাচে হোঁচট খেলো সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানি। এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত স্পেনের সাথে ১-১ গোলে ড্র করে পয়েন্ট হারালো জোয়াকিম লো’র শিষ্যরা। অন্যদিকে ড্র করে স্বস্তিতে স্প্যানিশরা। নেশনস লিগের বিগ ম্যাচ। দ্বৈরথটা দুই সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি ও স্পেনের। ম্যাচের অন্তিম মুহূর্ত। একটা গোল যেনো পাল্টে দিলো পুরো ম্যাচের দৃশ্যপট। অথচ পুরো ম্যাচে দাপুটে ফুটবল খেলেও তীরে এসে তরী ডোবালো জার্মানরা। এমন দৃশ্যে ডাগ আউটে স্তব্ধ জোয়াকিম লো। একেবারে শেষ মুহূর্তে ডিফেন্ডার লুইস গায়ার বুদ্ধিদীপ্ত গোলে মূল্যবান ১ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্পেন।

করোনা আর ক্লাব ব্যস্ততা পেরিয়ে দশ মাস পর জাতীয় দলের জার্সিতে ইউরোপিয়ান ফুটবলাররা। স্টুটগার্ডের মার্সিডিজ বেঞ্চ অ্যারেনায়, জার্মানি-ফ্রান্স লড়াই। প্রথম আসরে নিজেদের মেলে ধরতে পারেনি জার্মানরা। সেই আক্ষেপ ভুলে ঘরের মাঠে ফেভারিটের তকমা নিয়ে মাঠে নামে জোয়াকিম লোর শিষ্যরা।

ম্যাচের শুরুতেই বড় এই দুদলের মাঝে তেমন একটা ছন্দ ছিল না। তবে এক পর্যায়ে আধিপত্য বিস্তার করে জার্মানি। প্রতিপক্ষের রক্ষণদূর্গে মূর্হমূহ আক্রমণ শানায় স্বাগতিকরা। যদিও ম্যাচের ১১ মিনিটে দারুণ এক সুযোগ পায় স্বাগতিকরা। টনি ক্রুসের ক্রস থেকে ভেরনারের দুর্দান্ত হেড রুখে দেন স্প্যানিশ গোলরক্ষক।

তবে ফুটবল মানেই তো গোলের খেলা। সেই গোল না হলে জমবে কি আর খেলা? তিন মিনিট পরই জার্মান গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোলের সহজ সুযোগ নষ্ট করে বসেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড রদ্রিগো। শুধু তাই নয় প্রথমার্ধের শেষদিকে ব্যর্থতার পরিচয় দেয় রামোস বাহিনী। যদিও কেউই জালের ঠিকানা খুঁজে না পাওয়ায়,  প্রথমার্ধ থাকে গোলশূন্য।

বিরতির পরও দাপুটে ফুটবল খেলে জার্মানরা। ৫১ মিনিটে ডেডলক ভাঙ্গে লোর শিষ্যরা। রবিন গোজেন্সের অ্যাসিস্টে দলকে এগিয়ে দেন চেলসি ফরোয়ার্ড টিমো ভেরনার।

সাত মিনিট পরই সমতায় ফিরতে পারতো এনরিকের দল। যদি না রদ্রিগোর শট ক্রসবারে ছুঁয়ে যেতো। এরপর ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হয় টিমো-সানেরা। যদিও ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে লুইস গায়ার নাটকীয় গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্পেন।