জামালপুরে সাংবাদিক শামীমের অফিস,দোকানে অগ্নিকান্ড সহ ৬টি দোকানে অগ্নিকান্ড, ৫০লাখ টাকার উপরে ক্ষতি

শামীম হোসেন, জামালপুর জেলা প্রতিনিধি: জামালপুর পৌর সভার অন্তর্গত জঙ্গল পাড়া বোর্ড ঘর বাজারে চ্যানেল এস এর জামালপুর জেলা প্রতিনিধি ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল মানব কথনের প্রকাশক সাংবাদিক শামীম হোসেনের অফিস কাম ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে অগ্নি কান্ডে প্রায় লাখ টাকার মালা মাল পুড়ে গেছে।

এছাড়া ও আশে পাশে থাকা আরো ৬টি দোকান ও মালামাল পুড়েছে। সাংবাদিক শামীম হোসেন জানান, আজ ভোর রাতে বিদ্যুৎ এর লাইন থেকে অগ্নি কান্ডের ঘটনা ঘটতে পারে। তবে কোন দোকান থেকে এ আগুনের সূত্র পাত হয়েছে তা কেউ নিশ্চিত করে বলতে পারছে না।

আনুমানিক ভোর ৫টার দিকে ফোন পেয়ে দোকানে এসে দেখি আগুন দাউ,দাউ জলছে। চোখের সামনে সব পুড়ে ছাই হয়ে গেলে। কিছুই করতে পারলাম না। আমার সব শেষ হয়ে গেল। অনেক ধার দেনা করে অফিসের সাথেই ভ্যারাইটি এন্ড কসমেটিকস এর দোকান দিয়ে ছিলাম, সব শেষ। তিনি আরো জানান, অফিসের নিউজ সংক্রান্ত কাজে ৩টি ডেক্সটপ কম্পিউটার,১ টি ল্যাপটপ ও ১টি ক্যানন ডিএসএলার ক্যামেরা ছিল সহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিস পত্র ছিল সব ছাই।

এ মূহুতে এ ক্ষতি কাটিয়ে উঠা প্রায় অসম্ভব। জঙ্গল পাড়া বোর্ড ঘর বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি অভিযোগ করে বলেন, ফায়ার সার্ভিস কে যে সময়ে ফোন দেওয়া হয়ে ছিল তার চেয়ে ৪০মিনিট পরে এসেছে । অথচ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন থেকে এই বাজারে আসতে সময় লাগে মাত্র ৫ মিনিট। ফায়ার সার্ভিস যথা সময়ে আসলে ক্ষতি কিছুটা কম হতো।

একি অবস্থা পিডিবি বিদ্যুৎ অফিসের, তাদের বার, বার ফোন দেওয়ার পর তারা বিদ্যুৎ এর লাইন অফ করেছে। বিদ্যুৎ অফিস যথা সময়ে ফোন ধরে ওই এলাকার বিদ্যুৎ এর লাইন অফ করলে স্থানীয় লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করতে পারতো। সাংবাদিক শামীমের অফিস ও দোকান ছাড়াও বেশি ক্ষতি গ্রস্থ হয়েছে ফাহিম এন্টার প্রাইজের স্বত্ত্বাধিকারী আজাদ, সুমিতা ফার্মেসীর হামিদুল ইসলাম সহ অন্যান্য দোকানদার দের।

ব্যবসায়ীদের দাবী এই অগ্নিকান্ডে তাদের প্রায় ৫০ লাখ টাকার মত ক্ষতি সাধিত হয়েছে। অন্য দিকে ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছে পৌর মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মাসুম রেজা রহিম,সাধারন সম্পাদক বিজন কুমার চন্দ্র,পৌর কাউন্সিলর ফজলুল হক,হেলাল উদ্দিন,দিবা ফারহানা রানী,সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারজানা ইয়াছমিন লিটা সহ আরো অনেকে।