জামালপুরে শাহাবাজপুর নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রিপিয়ারিং কাজে দুর্নীতি

মো: শামীম হোসেন, জামালপুর জেলা প্রতিনিধিঃ জামালপুর সদর উপজেলার শাহাবাজপুর ইউনিয়নের শাহাবাজপুর নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রিপিয়ারিং কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। পুরাতন সামগ্রী উপজেলা শিক্ষা অফিসে না জানিয়ে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে ওই বিদ্যালয়ের সভাপতি রইছ উদ্দিন আওয়াল ও প্রধান শিক্ষক হাসিনা মমতাজের বিরুদ্ধে।

বিদ্যালয়টিতে বর্তমান সময়ে এলজিএসপির ৬ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার রিপিয়ারিং এর বরাদ্দ দেওয়া আছে। বরাদ্দ অনুযায়ী কাজ করার কথা থাকলেও হয়নি ৫০ পারসেন্ট কাজ। বদলানো হয়েছে প্রায় ২০ হাত লম্বা স্কুল ঘরের চালের টিন। এলাকাবাসীর মতে সর্বোচ্য ১ থেকে দেড় লাখ টাকার কাজ করেছে বিদ্যালয় কতৃপক্ষ। বরাদ্দ থেকে পরিবর্তন করা হয় ১০ থেকে ১২ বান চালের টিন। নিয়ম অনুযায়ী পরিবর্তিত পুরাতন টিন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার মাধ্যমে নিলামের কথা থাকলেও খোঁজ নেই কোন পুরাতন টিনের।

এলাকাবাসী বলেন এসব টিন বিক্রি করে টাকা বন্টন করে নিয়েছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাসিনা মমতাজ ও সভাপতি রইছ উদ্দিন আওয়াল। বিদ্যালয়টিতে তিন দফায় প্রায় ১০ লাখ টাকার বরাদ্দ থাকলেও আশ্বানও রুপ কোন কাজ হয়নি।

এসব অনিয়ম দুর্নীতি বিষয়ে প্রধান শিক্ষক হাসিনা মমতাজ বলেন, সাড়ে ৬ লাখ টাকার কাজ চলমান আছে। পুরাতন সব টিন সভাপতি নিয়ে গেছে। তিনি আরও বলেন সব কিছুই জানেন সভাপতি।

তবে সভাপতি রইছ উদ্দিন আওয়াল বলেন, সব টিন কন্টাকট্রার নিয়ে গেছে। সামান্য কয়টা টিন ছিলো ম্যানেজিং কমেটির সদস্যরা ভাগ করে নিয়ে গেছেন। আর সব কিছুই জানেন উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার রমজান মিয়া।

ইঞ্জিনিয়ার রমজান জানান, এসব বিষয়ে তিনিই কিছুই জানেন না। তবে সাড়ে ছয় লাখ টাকার কাজ চলছে ওই বিদ্যালয়ে তা তার জানা আছে।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাহিদা ইয়াছমিন বলেন, সরকারী কোন টিন বা আসবাবপত্র কেউ নিতে পারে না। আমি প্রধান শিক্ষককে সব কিছুর তালিকা করে লিখিত আকারে জানাতে বলেছি। আমি ওয়াকসনে নিবো।

তবে এলাকাবাসীর দাবি তদন্ত সাপেক্ষে এসব দুর্নীতির যথাযত ব্যবস্থা গ্রহন করে বিদ্যালয়টির উন্নয়নে ভুমিকা রাখবে কর্তৃপক্ষ।