জমি দখল করে পাকা বাড়ি নিমাণের চেষ্টা, বাধা দেয়ায় ৩ নারীর শ্লীলতাহানি

সাদিকুল ইসলাম সাদিক, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ সৈয়দপুরে এক অসহায় পরিবারের জমি দখল করে সেখানে পাকা বাড়ি নির্মান করছেন এক প্রভাবশালী পরিবার।ওই সময় বাধা দিতে গিয়ে জমির প্রকৃত মালিকের তিন নারীরশ্লীলতাহানি করা হয়েছে বলে বলে অভিযোগ মিলেছে।
ঘটনাটি ঘটেছে ৪ নভেম্বর নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের উত্তর অসুরখাই ডাক্তার পাড়া গ্রামে। প্রতিকার চেয়ে ভুক্তভোগী পরিবারটি স্থানীয় থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

থানা সূত্রে জানা যায়,ডাক্তার পাড়া গ্রামের ভ্যান চালক নুরুজ্জমান সোমবারু পৈতৃিক সূত্রে পাওয়া জমিটি অনেক বছর ধরে ভোগ দখল করে আসছেন। জমির মালিক গরিব হওয়ায় ওই জমির উপর কুদৃষ্টি পড়ে একই গ্রামের সেকেন্দার আলীর। সেটি দখল করতে অসহায় পরিবারটির উপর প্রায় সময় অত্যাচার ও নির্যাতন করে আসছিল ।

এনিয়ে গ্রামে একটি শালিশী বৈঠক হয়। সেখানে প্রভাবশালী পরিবারটি কোন কাগজ না দেখিয়ে বৈঠকের কোন সিদ্ধান্তকে তোয়াক্কা না করে ৪ নভেম্বর সকালে রড,সিমেন্ট,বালু,ইট,লাঠি সোটা ও কাজের লোক নিয়ে পাকা বাড়ি নিমাণের কাজ শুরু করে প্রভাবশালী সেকেন্দার আলী। এতে জমিটির প্রকৃত মালিক নুরুজ্জামান ওরফে সমবারুর স্ত্রী মিস্টি বাধা সৃষ্টি করলে তাকে একা পেয়ে রনি(২৯),সেকেন্দার আলী(৪৫),এনদা(৫৫) ও আনছারুল (৫৫) মার ডাং শুরু করলে মিস্টি আহত বিবস্ত্র হ’য়ে যায়। ।

এর পড়েও তাকে গলাচিপে হত্যার চেষ্টা করলে তাঁর চিৎকারে চাচী মাজেদা বেগম ও চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রী আফসানা বেগম বাঁচাতে এগিয়ে এলে তাদেরকে ও লাঠি দিয়ে মার ডাং ও পড়নের কাপড় টানা হেচড়া করে বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি ঘটায়।

পড়ে গুরুতর আহত হওয়া মিষ্টি কে উদ্ধার করে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই সময় প্রভাবশালি ওই পরিবারের বিরুদ্ধে মামলা করলে প্রতিবাদ কারিদের হত্তা করে করার হুমকি দেয়া হয়।ফলে পরিবারটি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন ।

এ বিষয়ে ওসি আবুল হাসনাত খান জানান, কাগজ পত্র দেখতে দুই পক্ষ কে থানায় ডাকা হয়েছে। কাগজ পত্র সঠিক না থেকে যদি অসহায় মানুষদের হয়রানি করা হয় তাহলে কেউ কে ছাড় দেয়া হবে না জানান তিনি।