জমির সীমানা সংক্রান্ত জেরে মোহনগঞ্জে হিন্দু পরিবারের বাড়ি ভাংচুর

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ জমির সীমানা সংক্রান্ত জেরে নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে সংখ্যালঘু একটি হিন্দু পরিবারের বাড়ি ও পুজা মন্ডপে ভাংচুর চালানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (২১এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার সুয়াইর ইউনিয়নের রানাহিজল গ্রামের আলম মিয়া, জামাল মিয়ার নের্তৃত্বে এই ভাংচুর চালানো হয় বলে জানিয়েছে হিন্দু পরিবারের সদস্য রঞ্জন চন্দ্র দাস।

বুধবার দুপুরে সরজমিনে গিয়ে এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মোহনগঞ্জ উপজেলার সুয়াইর ইউনিয়নের রানাহিজল গ্রামে গত শনিবার (১৮এপ্রিল) দুইজন আমিনসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে পল্লী চিকিৎসক রঞ্জন চন্দ্র দাস ও আলম মিয়ার পৈতৃক জমির সীমানা নির্ধারণ করা হয়।

পরবর্তীতে বুধবার (২১এপ্রিল) সকালে রঞ্জন কুমার দাসের পিতা সাধন চন্দ্র দাস নিজ ভূমিতে মাটি কাঁটতে গেলে বাধা দেয় আলম মিয়ার পরিবারের সদস্যরা। বাঁধা দেয়ার প্রেক্ষিতে ঐদিন দুপুরে পালগাঁও বাজারে দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। দুই পক্ষকেই বাজারের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বিষয়টি সুরাহা করে দেয়। আকস্মিকভাবে হঠাৎ সন্ধ্যায় আলম মিয়া, জামাল মিয়ার নের্তৃত্বে পল্লী চিকিৎসক রঞ্জন চন্দ্র দাসের বসতবাড়ি ও পারিবারিক পূজা মন্ডপে ভাংচুর চালানো হয়। পরে রাতেই মোহনগঞ্জের আদর্শনগর ফাঁড়ি থানার এসআই হাফিফ মিয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

মোহনগঞ্জ থানার ভাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল আহাদ খান জানিয়েছেন, লিখিত অভিযোগ পেলে দায়ীদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।