চুকনগর ভদ্রা নদীর তীরবর্তী নরনিয়া সপ্তপল্লী ভৈরবী তির্থ মহাশশানে তারক ব্রহ্ম মহানাম যজ্ঞ অনুষ্ঠিত

জাহাঙ্গীর আলম (মুকুল), ডুমুরিয়া খুলনা প্রতিনিধি: খুলনা ডুমুরিয়া উপজেলার নরনিয়া সপ্তপল্লী ভৈরবী তীর্থ মহাশশানে বিশ্বের সকল জীবের শান্তি, মঙ্গল ও কল্যাণ কামনায় ১৯তম ১৬ প্রহর ব্যাপী শ্রীশ্রী তারকব্রহ্ম মহানাম যজ্ঞ অনুষ্ঠান চলছে। চুক-নগর ভদ্রা নদীর তীরবর্তী নরনিয়া সপ্তপল্লী ভৈরবী তির্থ মহাশশানে তারক ব্রহ্ম মহানাম যজ্ঞ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উক্ত নামযজ্ঞ অনুষ্ঠানে সরকারি নিয়ম মেনে সামাজিক দ্বুরত্ব ও স্বাস্যবিধি বজায় রেখে স্বল্প আয়োজনে চলছে নামযজ্ঞ অনুষ্টান।

উক্ত নামযজ্ঞ অনুষ্ঠানের অন্যতম আয়োজক জয়দেব আড্য উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন ঘোর কলির অমানিশায় কঠোর যন্ত্রণায় জগত জীবন সংসার সর্বগ্রাসী অধর্মের করাল কষাঘাতে নিষ্পেষিত। সনাতন ধর্মের অমৃতবাণী বিস্মৃত হয়ে অনাচার ও কুসংস্কারের আবর্তে মানবকুল আজ অনিশ্চিত অন্ধকারে নিমজ্জমান। তাই এই পতন প্রবন মানবতা উদ্ধারণে মুক্তির দূত হয়ে আবির্ভুত মহাবতারী শ্রীশ্রী গৌর সুন্দর লীলাচ্ছলে বিলিয়েছেন শ্বাশত বিশ্ব আত্মার শান্তির মহামন্ত্র- হরে কৃষ্ণ হরে কৃষ্ণ কৃষ্ণ কৃষ্ণ হরে হরে হরে রাম হরে রাম রাম রাম হরে হরে।

তিনি শুভানুষ্ঠানিকা অনুযায়ী এ সনাতনী মহা যজ্ঞ এর প্রতিটি পর্বে আপনার সবান্ধব স্নিগ্ধ সুন্দর উপস্থিতি এবং ঐকান্তিক সহানুভূতি কামনা করেছেন। শ্রী শ্রী তারক ব্রহ্ম নাম সুধা চলবে আগামী ২ই ডিসেম্বর রোজ বুধবার পর্যন্ত। উল্লেখ্য, কোভিড ১৯ করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার নরনিয়া সপ্তপল্লী ভৈরবী তির্থ মহাশশানে ষোল বছরের ঐতিহ্যবাহী গ্রামিন মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। প্রতি বছর বাংলা কার্তিক মাসের শেষে বা অগ্রহায়ণের প্রথম দিকের ভরা পূর্ণিমার তিথিতে চুক-নগর ভদ্রা নদীর তীরবর্তী নরনিয়া সপ্তপল্লী ভৈরবী তির্থ মহাশশানে ১৬ প্রহরব্যাপি তারক ব্রহ্ম মহানাম যজ্ঞ অনুষ্ঠিত হয়।