চীনে আবারও বাড়ছে করোনা, বেইজিংয়ের ২৭টি এলাকায় কড়াকড়ি

নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ফের বেড়ে যাওয়ায় চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। ২৭টি এলাকার কয়েক লাখ মানুষকে তাদের বাসস্থান থেকে অন্য কোথাও যেতে দেওয়া হচ্ছে না।

বেইজিংয়ে আজ বুধবার নতুন ৩১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। গত এক সপ্তাহে নতুন রোগী বেড়ে দাঁড়াল ১৩৭ জনে। এর আগে ৫৭ দিন নতুন কোনো আক্রান্ত পাওয়া যায়নি চীনের রাজধানীতে।

বেইজিংয়ের জিনফান্দি পাইকারি বাজার থেকে নতুন করে করোনা ছড়িয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গোটা রাজধানীর ৮০ শতাংশ মাংস ও সবজির সরবরাহ এই বাজার থেকে হয়ে থাকে।

বাজারটির আশপাশের ২৭টি এলাকাকে মাঝারি মাত্রায় ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে। আর বাজারসংলগ্ন এলাকাকে অতিঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে কড়াকড়িমূলক বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এসব এলাকা থেকে কাউকে অন্যত্র যেতে হলে করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ আসতে হবে।

প্রথমত, ৯ জুলাই পর্যন্ত বাতিল করা হয়েছে অনেক ফ্লাইট ও রেলওয়ে সেবা। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং কলেজগুলোতে ক্লাস বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সুইমিংপুল, শরীরচর্চা কেন্দ্র ও খেলার মাঠগুলোও ফের বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে পথঘাট ও কলকারখানাগুলো খোলা থাকছে। সামাজিক দূরত্ব মেনে চলাফেরা ও কাজকর্ম চলছে চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে।

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেওয়া মহামারি করোনাভাইরাস এখন সারা দুনিয়ায় তাণ্ডব চালিয়ে গেলেও চীন প্রায় করোনামুক্ত হয়েছিল। সপ্তাহখানেক ধরে আবার দেশটির রাজধানীতে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।