চীনের প্রথম পারমাণবিক শক্তিচালিত বিমানবাহী রণতরি

এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে নিজেদের নৌশক্তি বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রথমবারের মতো পারমাণবিক শক্তিচালিত বিমানবাহী রণতরি বানাচ্ছে চীন।

এটি হবে দেশটির চতুর্থ বিমানবাহী রণতরি। হংকংভিত্তিক সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট দেশটির সামরিক বাহিনীর ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাতে শনিবারের প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

দেশটির নৌবাহিনীর ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টকে জানিয়েছে, চতুর্থ বিমানবাহী রণতরিটি নির্মাণের মধ্য দিয়ে

এ খাতে উল্লেখযোগ্য একটি ‘ব্রেকথ্রু’ আনার জন্য মুখিয়ে আছেন নির্মাতারা।

এর মাধ্যমে জাহাজ নির্মাণ শিল্পে প্রযুক্তিগত আরও এক উন্নতি হবে। এটি সম্ভবত পারমাণবিক শক্তিচালিত হতে যাচ্ছে।

চীনের সশস্ত্র বাহিনীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ আরও একটি সূত্র জানিয়েছে, দেশের চতুর্থ এই বিমানবাহী রণতরিতে পারমাণবিক

শক্তির ব্যবহার সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব পর্যালোচনা করছেন চীনের কর্মকর্তারা।

এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়েছে কি না তা না জানালেও তিনি বলেছেন, এ সিদ্ধান্ত হবে খুবই সাহসী এবং একইসঙ্গে অনেক চ্যালেঞ্জিং।

দুই বছর বিলম্বিত হওয়ার পর চলতি বছরের শুরুতে চতুর্থ এই বিমানবাহী রণতরির নির্মাণ কাজ আবার শুরু হয়েছে।

ইতোমধ্যে চীনের দুটি বিমানবাহী রণতরি সক্রিয় কার্যক্রম চালাচ্ছে। তৃতীয় আরও একটি বিমানবাহী রণতরি এ বছর উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

তবে আগের তিনটির কোনোটিই পারমাণবিক শক্তিচালিত নয়। এইতো মাত্র কয়েক বছর আগে দেশে তৈরি প্রথম বিমানবাহী রণতরির যাত্রা শুরু হয়েছিল চীনে।

২০১৭ সালে প্রথম এমন রণতরি উদ্বোধন করার মধ্য দিয়ে চীন দেখিয়েছিল, প্রতিরক্ষা শিল্পে তাদের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির উন্নতি দিন দিন আরও মজবুত হচ্ছে।

এছাড়া ওই অঞ্চলে মার্কিন হুমকি মোকাবিলাও ছিল এর প্রধান লক্ষ্য।