চীনারা আসতে দেরি করলে পদ্মাসেতুর অগ্রগতিতে সমস্যা হতে পারে

করোনা ভাইরাস নিয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতি দুই মাসের বেশি বিলম্বিত হলে পদ্মাসেতুর কাজের অগ্রগতিতে সমস্যা হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে মন্ত্রণালয়ের অধীন দপ্তরপ্রধান এবং প্রকল্প পরিচালকদের নিয়ে চলমান উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর অগ্রগতি পর্যালোচনা ও নাগরিক সেবা বিষয়ক সভা শেষে তিনি একথা বলেন। 

এসময় কাদের বলেন, বর্তমানে চীনের নববর্ষ উপলক্ষে পদ্মাসেতু প্রকল্পে কর্মরত ৩৩২ জন কর্মী ছুটিতে গেছেন। সেটা প্রলম্বিত না হলে আগামী দুই মাসের মধ্যে পদ্মাসেতুর কাজের অগ্রগতিতে কোনো সংকট হবে না।

তিনি বলেন, পদ্মাসেতুতে মোট চীনা নাগরিক কাজ করেন ৯৮০ জন। এরমধ্যে নববর্ষ উপলক্ষে চীনে গেছেন ৩৩২ জন। তাদের মধ্যে ফিরে এসেছেন ৩৩ জন। এরমধ্যে ৮ জন কোয়ারেন্টাইন মুক্ত। অন্যরা কোয়ারেন্টাইনে আছেন।

‘পদ্মাসেতুতে আগামী দুই মাসে যদি (চীনের) এই অচলাবস্থার অবসান হয় তাহলে আমাদের কোনো অসুবিধা হবে না। আমাদের কাজ চলতে থাকবে। যদি না এরমধ্যে ছুটি আরো প্রলম্বিত হয়। চীনের নববর্ষ উপলক্ষে ছুটিতে গেছেন। সেটা প্রলম্বিত না হলে আগামী দুই মাসের মধ্যে পদ্মাসেতুর কাজে অগ্রগতিতে কোনো সংকট হবে না।’