চিলমারীতে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে তিন জনকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ

মজাহারুল ইসলাম মিলন, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের চিলমারীতে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে তিন জনকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় চিলমারী মডেল থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনাটি ঘটেছে, রানীগঞ্জ কয়ারপাড় গ্রামে। আহতের স্বজন সূত্রে জানা গেছে, চিলমারী উপজেলার রানীগঞ্জ কয়ারপাড় গ্রামের পনির উদ্দিনের পুত্র ইয়াছিন আলী (৪০) এর সাথে প্রতিবেশি মহসিন আলী এর জমি-জমা নিয়ে পারিবারিক ভাবে বিরোধ চলে আসছিল।

উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত ১০ জুলাই মহসিন আলী ও তার পক্ষীয় লোকজন ইয়াছিন আলীর বাঁশঝাড় হইতে ৮টি বাঁশ কেটে নেয়। পরে গত ১৬ জুলাই ইয়াছিন বাঁশ কাটার বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা পান। এরপর ইয়াছিন আলী বাঁশ কাটার বিষয়ে মহসিন আলী (৪৫)র কাছে জানতে চাইলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ পাড়ে।

পরে মহসিন আলী, দুলাল মিয়া (২১)সহ অজ্ঞাতনামা ৭-৮জন ব্যক্তি ঘটনার প্রতিবাদ করায় ইয়াছিন আলীকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এ সময় ইয়াছিন আলীকে রক্ষা করার জন্য স্ত্রী আবেদা বেগম (৩৫) ও পুত্র আশিকুর রহমান (১৪) এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারপিট করে গুরুত্বর আহত করেন। পরে জখমীদের আত্মচিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে উলিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

এ বিষয়ে গুরুত্বর আহত ইয়াছিন আলী সাংবাদিকদের জানান, অন্যায় ভাবে মহসিন আলী ও তার লোকজন আমার পরিবারের উপর হামলা চালায়। তাদের হামলায় আমার মাথা ফেটে যায়। এ ঘটনায় মহসিন আলী ও তার লোকজনের বিরুদ্ধে চিলমারী মডেল থানায় মামলার প্রস্তুত চলছে।