চালের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে, দাম বাড়ার কারণ নেই : খাদ্যমন্ত্রী

চালের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে, তাই দাম বাড়ার কোনো কারণ নেই। প্রয়োজনে আমদানি করে হলেও চালের বাজার স্থিতিশীল রাখা হবে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। আজ মঙ্গলবার খাদ্য মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে।

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, ‘প্রয়োজন হলে সুবিধামতো সময়ে শুল্ক কমিয়ে হলেও চাল আমদানি করা হবে।’

এর আগে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অপর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এই করোনাকালে যদি অপচেষ্টার মাধ্যমে চালের মূল্য বৃদ্ধি করা হয়, তাহলে সরকার কঠোর অবস্থানে যাবে। প্রয়োজনে সরকারিভাবেই চাল আমদানি করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

খাদ্যমন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন, দেশের এক ইঞ্চি জমিও যেন পতিত পড়ে না থাকে। প্রতি ইঞ্চি জমি যেন চাষাবাদ করা হয়।

চালকল মালিকদের উদ্দেশে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, এই করোনাকালে মানবতার সেবায় এগিয়ে আসুন। আপনারা সরকারের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ চাল সরকারি গুদামে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে জমা দেবেন। অতীতেও আপনারা সরকারকে চাল দিয়ে সহযোগিতা করেছেন। আশা করি, এ বছরও সরকারি গুদামে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে চাল দিয়ে সে ধারাবাহিকতা বজায় রাখবেন।

মন্ত্রী আরো বলেন, এখন ভরা মৌসুম। এ সময়ে চালের দাম বৃদ্ধি পাওয়ার কোনো কারণ নেই।’

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘চালের বাজার অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করবেন না। ইতোমধ্যে সরকার চাল আমদানি করার চিন্তাভাবনা শুরু করেছে। এ করোনাকালে অপপ্রচেষ্টার মাধ্যমে যদি চালের মূল্য বাড়ানো হয়, তাহলে সরকারিভাবেই চাল আমদানি করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।