চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে বিষ পানে গৃহবধূ ও তরুনীর আত্মহত্যা

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার, চাঁদপুর প্রতিনিধি:  চাঁদপুর ২৫০শয্যার সরকারি জেনারেল হাসপাতালে হাজীগঞ্জ ও মতলব দক্ষিণ উপজেলার দু জন গৃহবধূ এবং তরুনী আত্মহত্যা করেছে। চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ লাশ দুটি হাসপাতাল থেকে উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। ৭জুলাই মঙ্গলবার ভোর রাতে ও সকালে এ দুজন মারা যায়।

মতলব দক্ষিণ উপজেলার আশ্বিনপুর গ্রামের পাটোয়ারী বাড়ির কিশোর পাটোয়ারীর কণ্যা মিম আক্তার (১৬)তার পরিবারের সাথে অভিমান করে আত্মহত্যার পথ বেঁচে নেয়। জানা যায় পড়া লেখা ও প্রেম সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মিমকে তার পরিবারের সদস্যরা ডাক দেয়। এতে মিম মানষিক ভাবে ভেঙ্গে পরলে সে বিষাক্ত কীটনাশক খেয়ে ফেলে। ভোড় রাত ৩টা ৪৫ মিনিটের দিকে মিমকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

অপর দিকে হাজীগঞ্জ উপজেলার বাকিলা ইউনিয়নের বাকিলা গ্রামের দাস বাড়িতে ডুবাই প্রবাসী নন্দ দুলাল দাসের স্ত্রী নিপা রানী দাস (২৫)বিষ পান করে আত্মহত্যা করেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে নিপা রানী দাস প্রচন্ড ভাবে বমি করতে থাকে, মুমুর্ষ অবস্হায় তাকে সকালে চাঁদপুর সরবারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করায়। চিকিৎসাধীন অবস্হায় নিপা মারা যায়। হাসপাতাল কতৃপক্ষ চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ কে অবগত করলে পর্যায় ক্রমে উপ পরিদর্শক পলাশ বড়ুয়া লাশ গুলো উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরন করে।