চাঁদপুর সদরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের বিদায় ও বরণ

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার, চাঁদপুর প্রতিনিধি: চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদের আয়োজনে নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা’র বিদায় ও নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ’র বরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) সকালে সদর উপজেলার সম্মেলন কক্ষে নিয়মিত মাসিক সভা শেষে বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডা. জেআর ওয়াদুদ টিপু।তিনি বক্তব্যে বলেন, এইদিনটি আনন্দের আবার দুঃখের। আসলে এটাই নিয়ম। বিদায়ী নির্বাহী কর্মকর্তাকে আমরা সবসময়ই আমাদের পরিবারের একজন মনে করতাম। আমরা সবসময়ই শ্রদ্ধার ও ভালোবাসার মাধ্যমে কাজ করেছি।

আশাকরি নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তা সেই জায়গাটা আরো সুন্দরভাবে ধরে রাখবেন। সবাই যেন একই পরিবারের হয়ে কাজ করতে পারি।তিনি আরো বলেন, এই পরিষদ ভালোভাবে তার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে এবং আগামীতে আরো ভালোভাবে তার কর্যক্রম পরিচালিত করবে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান।

তিনি বক্তব্যে বলেন, বেদনা যেখানে গভীর হয় ভাষা সেখানে দুর্বল হয়। আমি মনে করি বিদায়ী ইউএনও উনি উনার শিক্ষক পিতার শ্রেষ্ঠ সন্তান। আমি উনাকর প্রশাসক হিসেবে নয় একজন ভালো মানুষ হিসেবে জানি। উনি অফিসে থাকলে অফিস আলোকিত হয়ে উঠে। আমাদের মনের গভীরে উনি চিরদিনই বেঁচে থাকবে। বিদায়ী নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা অশ্রুসিক্ত ভারাক্রান্ত কন্ঠে বলেন,

বিদায় শব্দটি আসলেই অনেক কষ্টের। অনেক স্মৃতি চাঁদপুরে রয়ে গেছে। চাঁদপুরে যোগদানের পর থেকেই সবার সহযোগিতা আমি পেয়েছি। নিজের মনের মত করে অফিসটাকে সাঁজাতে চেয়েছি। একসাথে কাজ করতে গেলে মনের সাথে সবার মিল থাকতে হবে। ১০ বছরের চাকুরি জিবনে চাঁদপুরের মতো এমন ভালোবাসা কোথাও পাবো না। চাঁদপুরের মানুষগুলো সত্যিই চাঁদের মতো। নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ বলেন, বিদায়ী অনুষ্ঠান আসলে সবসময়ই বেদনাদায়ক।

বদলি হওয়াটা আমাদের চাকুরির অংশ। অশ্রুসিক্ত বিদায় দেখে বুঝা যায় কতটা আন্তরিক ছিলেন এই স্যার। আমি চেষ্টা করবো প্রশাসনের ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন রাখার।তিনি সকলের উদ্দেশ্য করে বলেন, স্যারের পাশে যেভাবে আপনারা ছিলেন আশাকরি আমার কাজের পাশেও আপনারা থাকবেন। বিদায়ী নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা’র সঞ্চালনায় অনুভূতি প্রকাশ করেন, পৌর মেয়র অ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইমরান হোসেন সজিব,

ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী , মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আবিদা সুলতানা, ১নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামিম খান, ৮নং বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ বিল্লাল, রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারী, ৫নং রামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আল মামুন পাটওয়ারী,

১৩ নং হানারচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সাত্তার রাঢ়ী, মৈশাদি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামানা মানিক, চান্দ্রা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু, ইব্রাহিমপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবুল কাশেম, আশিকাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিল্লাল হোসেন (মাস্টার),

৯নং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম, বাপসা’র সাধারণ সম্পাদক এমএ কুদ্দুস রোকন, উপজেলা প্রকৌশলী এসএম রাশেদুল, উপজেলা শিক্ষা অফিসার নাজমা বেগমসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ। অনুষ্ঠানে বিদায়ী নির্বাহী কর্মকর্তা ও নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তাদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান, পৌরসভার মেয়র অ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি এমপি’র পক্ষে চাঁদপুর প্রতিনিধি অ্যাড. সাইফুদ্দিন বাবু।