চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে আগ্রহী বিএনপি’র সম্ভব্য মেয়র প্রার্থীদের কেন্দ্রে দৌড় ঝাপ

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার, চাঁদপুর প্রতিনিধি: চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র পদে জাতীয়তাবাদি দল বি এন পি’র প্রার্থী সফিকুর রহমান ভূইয়া মারা যাওয়ায় নিবাচন কমিশন চাঁদপুর পৌরসভার নির্বাচন স্হগিত করে। গত ২৩/২৪ আগস্ট নির্বাচন মেয়র পদে পূর্নঃ তফসিল ঘোষণা করার কথা ছিল। সেই থেকে বি এন পি থেকে মেয়য়র পদে নির্বাচনে অংশ নিতে বেশ ক ‘জন নেতা ঢাকায় দৌড় ঝাপ করছেন।অর্থাৎ কেন্দ্রকে ম্যানেজ করতেই তারা ছুটছেন কেন্দ্রে।
চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে যাদের নাম শুনা যাচ্ছে তারা হলেন চাঁদপুর সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি, জেলা বিএন পির যুগ্ম আহ্বায়ক ও শহর বি এন পির সভাপতি আক্তার হোসেন মাঝী,চাঁদপুর সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি,জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান চাঁদপুর সদর থানা বিএনপির সভাপতি শাহাজালাল মিশন। চাঁদপুর সরকারি কলেজের সসাবেক জি এস ও জেলা বি এন পির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মোশাররফ হোসেন হাওলাদার। সাবেক চাঁদপুর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও বর্তমান চাঁদপুর জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক নুরুল আমিন খাঁন আকাশ।
চাঁদপুর জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং শহর বিএনপি’র সেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহিম জুয়েল। চাঁদপুর জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও পরবর্তী আহ্বায়ক এবং বর্তমান জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদদক ,ফয়সাল গাজী বাহারেরর নাম শুনা যাচ্ছে। যাদের নাম শুনা যাচ্ছে তারা সবাই চাঁদপুর জেলা জাতীয়তাবাদি দলের নিবেদিত প্রাণ।আন্দোলন সংগ্রামে এরা রাজপথের সৈনিক। এরা একেক জন আন্দোলন সংগ্রাম করতে গিয়ে বহুবার হাজত বাস খেটেছে।
চাঁদপুর জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক চাঁদপুর হাইমচর মাটি মানুষের জননেতা শেখ ফরিদ আহম্মেদ মানিকের রাজনীতিতে বিশ্বাসি। তাই ততারা শশেখ ফরিদ আহমেদ মানিককে ধন্যবাদ জানান।কারন উনার সুদক্ষ নেতৃত্বের কারনে আজ দেশের এই দুর্বল পরিস্থিতি মাঝেও গনমানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে তারা চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচন করে শহরবাসীর দুঃখ দুরদর্শা নিরসনে কাজ করতে চায়। শেখ ফরিদ আহম্মেদ মানিক সহ জেলা বিএনপি’র নীতিনির্ধারণী ফোরাম এর কাছে তারা অনুরোধ করে যে যোগ্য তাকেই যেনো প্রার্থী হওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়।মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য মেয়র প্রার্থীরা এখন কেন্দ্রের দিকে বেশি দৌড় ঝাপ করছে।তাদের খুটির ভিত মজবুত করতে।
দীর্ঘ দিন ধরে অর্থাৎ সফিকুর রহমান ভূইয়ার মৃত্যুর পর থেকে মাঠ পর্যায়ে চষে বেরাচ্ছেন গোপনে গোপনে হাজী মোশারফ হোসেন হাওলাদার, শাহ জালাল মিশন সহ অন্য প্রার্থীরা।শাহজালাল মিশন ছাত্র রাজনীতির মাধ্র্রমে জাতীয়তাবাদি দলের রাজনীতির সাথে বহু বছর ধরে সম্পৃক্ত। তেমনি হাজী মোশারফ হোসেন হাওলাদার ও একই ভাবে মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিয়ে মাঠ পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এখন শুধু প্রতিক্ষার প্রহর গুনা কেন্দ্র থেকে কাকে নির্বাচনে অংশগ্রহনের জন্য মনোনয়ন দেয়া হয়। তবে সকল প্রত্যাশিত প্রার্থীদের একই কথা যাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ ভাবে তার জন্য কাজ করবো।