চাঁদপুরে চান্দ্রায় ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা ছাত্রী : চাঁদপুর মডেল থানায় মামলা

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার, চাঁদপুর প্রতিনিধি: চাঁদপুর সদর উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রোডস্থ রাশেদিয়া জামে মসজিদের ইমাম মাও. ফয়সাল আহমেদ খান এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে। এতে ওই ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় সোমবার চাঁদপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ধর্ষণকারী ইমামের বাড়ি ঘেরাও করে। এর পর থেকে ওই ইমাম পলাতক রয়েছে। ওই ছাত্রীর মা জানান, তার মেয়ে রাশেদিয়া জামে মসজিদের ইমাম ফয়সালের কাছে প্রতিদিন সকালে কুরআন শরীফ পড়তে মসজিদের মক্তবে যেত। এ সময় লম্পট ফয়সাল মসজিদের অন্য ছাত্র-ছাত্রীদের ছুটি দিয়ে মসজিদের সঙ্গে তার রুম পরিষ্কার করার কথা বলে ওই ছাত্রীকে নিয়ে যায়।

সেখানে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে ও মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে রাখে। পরে ওই ছাত্রীকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে ও ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে প্রতিদিন মেলামেশায় বাধ্য করত। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে ইমাম ফয়সাল আহমেদ গা-ঢাকা দেয়। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারসহ গণ্যমান্যদের জানানো হলে তারা থানায় অবহিত করার জন্য পরামর্শ দেন। রাশেদিয়া জামে মসজিদের সাধারণ সম্পাদক মান্নান হাজী জানান, মসজিদে পড়তে আসা এক মাদ্রাসাছাত্রীর সঙ্গে অসামাজিক কার্যকলাপের বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর ইমাম ফয়সাল গা-ঢাকা দেয়।

তিনি এর সুষ্ঠ বিচার চান। চান্দ্রা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী জানান, মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ ও অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর তার পরিবার ইউনিয়ন পরিষদে এসে অভিযোগ করেছেন। আমরা ওই অভিযোগকারীকে আইনের আশ্রয় নিতে বলেছি। চাঁদপুরের এএসপি সদর সার্কেল জাহেদ পারভেজ চৌধুরীর হস্তক্ষেপে চাঁদপুর মডেল থানায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।