চাঁদপুরে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ জন

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার, চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ চাঁদপুরে আরো ১জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। সর্বশেষ মৃত ব্যক্তির নাম ফারুক সরকার (৩৮)। মঙ্গলবার (২৬ মে) দুপুর আড়াইটার সময় মতলব উত্তর উপজেলার বাগানবাড়ি ইউনিয়নের বরুরকান্দি গ্রামের নিজ বাড়িতে তিনি মারা যান। তিনি নারায়নগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও উপজেলার পল্লী বিদ্যুৎ বিভাগে চাকুরি করতেন।

এ নিয়ে জেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৩জন। চাঁদপুর সিভিল সার্জন অফিস মঙ্গলবার বিকেলে এ তথ্য জানিয়েছে। সূত্র জানায়, এ দিন করোনা টেস্টের জন্য প্রেরিত কোনো নমুনার রিপোর্ট আসেনি। তবে নারায়ণঞ্জে আক্রান্ত ব্যক্তি মতলব উত্তর মারা যাওয়ায় তার তথ্য জেলার মৃতের সাথে সংযুক্ত হয়েছে।

সূত্র জানায়, চাঁদপুর জেলায় বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১শত৪৭জন। এর মধ্যে মৃতের সংখ্যা ১৩জন। সুস্থ হয়েছেন ২৩জন। চিকিৎসাধীন ১শত১১জন।

সিভিল সার্জন ডা. সাখাওয়াত উল্লাহ জানান, মঙ্গলবার আরো ৭৩জনের নমুনা পাঠানো হয়েছে। এ নিয়ে চাঁদপুরে মোট সংগৃহীত নমুনার সংখ্যা দাঁড়ালো ১হাজার৫শত১জন। এর মধ্যে রিপোর্ট এসেছে ১হাজার২শত ৮০জনের। রিপোর্ট অপেক্ষমান ২শত২১জনের।

চাঁদপুরে জেলায় বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত ১শত ৪৭জন।উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ৮১, ফরিদগঞ্জে ২৬, মতলব উত্তরে ৭, হাজীগঞ্জে ৭, মতলব দক্ষিণ ৬, কচুয়ায় ৮, শাহরাস্তিতে ৮ ও হাইমচরে ৪জন।

উপজেলাভিত্তিক মৃতের পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ৫জন, ফরিদগঞ্জে ৩জন, কচুয়ায় ২জন, হাজীগঞ্জে ১জন, শাহরাস্তিতে ১জন ও মতলব উত্তরে ১জন।

তিনি আরো জানান, চাঁদপুর জেলায় এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে ভর্তিকৃত রোগীর সংখ্যা ৬৮জন। এর মধ্যে ইতিমধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৬৩জন। বর্তমানে আইসোলেশনে রোগীর সংখ্যা ৫জন। জেলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির সংখ্যা ৩হাজার ৬শত ৬৩জন। এর মধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৩হাজার ৬শত ৪৪জন। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১৯জন।