চাঁদপুরে এবারর খিস্ট্রন ব্যাক্তির দাফনে সহায়তা করল ইসলামি আন্দোলন সেচ্ছাসেবক টিম

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার, চাঁদপুর প্রতিনিধি:  চাঁদপুরে একের পর এক করোনা উপসর্গ নিয়ে বা করোনা প্রজেটিভ নিয়ে মৃত ব্যাক্তিদের দাফনের কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ ইসলামি আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সেচ্ছাসেবক টিম।গতকাল পর্যন্ত ৪৯ মৃতের দাফন ও সবদাহে সহযোগিতা করেছে। বুধবার সকাল ৯টায় চাঁদপুর শহরের মুখার্জিঘাট এলাকার খিষ্ট্রান পাড়ার বাসিন্দার মৃত হরেন্দ্র বর্মনের ছেলে নিরেন বর্মন (৫৫)করোনা উপসর্গ নিয়ে নিজ বাসায় মৃত্যুবরন করেন।
চাঁদপুর সদর উপজেলা স্বাস্হ্য বিভাগ থেকে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুরের সেচ্ছাসেবক টিমকে জানানো হলে দুপুরে চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি জয়নাল আবেদিন ও সাধারন সম্পাদক ইয়াসিন রাশেদ সানি সহ সদস্যরা নিরেন বর্মনের মৃতদেহ বাসা থেকে দাফনের জন্য নিশি বিল্ডিং এলাকার তাদের কবরস্হানে নিয়ে আসেন। সেখানে গোসল করিয়ে ধর্মিয় নিয়ম কানুন পালন করে দাফন সম্পন্ন করা হয়।মৃত নিরেন বর্মন দুই কন্যা সন্তানের জনক ছিলেন।তার ভাই মনিন্দ্র বর্মন জানান,তার ছোট ভাই গত ১জুন থেকে অসুস্হ্য।এতদিনতার কোনো করোনা উপসর্গ ছিলনা।মঙ্গল বার তার শ্বাস কষ্ট দেখা দেয়।
বুধবার সকাল ৯টায় বাসায় সে মারা যায়। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি জয়নাল আবেদিন জানান, করোনা এমন একটা রোগ মৃত্যুর পর আপনরা ও কাছে আসেনা। সবাই দূরে সরে যায়। চরমোনাই পীরের নির্দেশে আমরা সেই মৃত ব্যাক্তির দাফন কাফনে এগিয়ে এসেছি। এ পর্যন্ত অর্থাৎ বুধবার দুপুর পর্যন্ত ৪৯ জন মৃত ব্যাক্তির দাফন সম্পন্ন করতে সহযোগিতা করেছি। এর মধ্যে একজন সনাতন ব্যাক্তির সবদাহ করেতে সহায়তা করেছি।আজ খিস্ট্রান ধর্মের ব্যক্তির দাফনে সহায়তা করলা।এমনি ভাবে করোনা পরিস্হিতিতে মৃতদের দাফন কাফন যেন চরমোনাই পীর সাহেবের নির্দেশে করতে পারি।