চাঁদপুরে এক দিনে করোনা উপসর্গে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ৫ জনের মৃত্যু

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার,  চাঁদপুর, প্রতিনিধিঃ  করোনাভাইরাস ও উপসর্গ নিয়ে চাঁদপুরে এক দিনে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ৫জনের মৃত্যু হয়েছে। উপসর্গ থাকায় ৪জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে । পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের দাফন করা হয়। মৃতদের মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৩জন মতলব উত্তরে ১জন এবং ফরিদগঞ্জের ১জন রয়েছেন।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চাঁদপুর শহরের ১২নং ওয়ার্ড দর্জিঘাট এলাকায় করোনার উপসর্গ নিয়ে ৪৫ বছর বয়সী এক নারী মৃত্যুবরণ করেন। ওই নারী গত এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে জ্বর, সর্দি, কাশিজনিত রোগে অসুস্থ ছিলেন। শুক্রবার বিকাল ৩ টার তিনি চাঁদপুর শহরে ফ্যামিলি কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চিকিৎসাধিন অবস্থায় মারা যান ফয়েজ উল্যাহর(৭৫)। তিনি চাঁদপুর সদর উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের দক্ষিণ বালিয়া গ্রামের ৮ নং ওয়াডের বাসিন্দা। তিনি সপ্তাহকাল যাবত সর্দি জ্বর কাশিতে ভুগছিলেন।

গণভবনের পরিচ্ছন্নতাকর্মী মোসলেম উদ্দিন বেপারী শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা ১০ মিনিটে করোনায় মারা যান। চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার সুলতানাবাদ ইউনিয়নের ফরিদকান্দি গ্রামের বাসিন্দা মোসলেম উদ্দিন এর মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। তার বাবার নাম হাসমত বেপারী।

শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টায় শহরের নিউ ট্রাক রোডের বটতলা এলাকার মোঃ আবুল খায়ের(৫৫) নামে এক ব্যক্তি জ্বর সর্দি কাশি নিয়ে মারা যান। তার গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার পশ্চিম মৈশাদী এলাকায়। তিনি এখানে বাড়ি নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছিলেন। চাঁদপুর সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাত ১টায় আবুল হাসনাত নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে । তার বাড়ি ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালিথুবা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে। হাসনাত দুদিন যাবত জ্বরে ভুগছিলেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় তার শ্বাসকষ্ট শুরু হলে চাঁদপুর সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

উল্লেখিত তথ্য জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ, সংশ্লিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা, ইউপি চেয়ারম্যান এবং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়া গেছে। দাফন কাজে অংশ নেওয়া চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র প্রার্থী এডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েলের কিউ আর সি ও ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা জানিয়েছেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মৃতদের দাফন কাফন করা হয়েছে।