চাঁদপুরের কচুয়ায় ম্যাজিষ্ট্রেট লাঞ্চিত মামলায় কাউন্সিলরসহ ৫ জনের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার, চাঁদপুর প্রতিনিধি: চাঁদপুর কচুয়ায় পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মারধরের শিকার হয়েছিলেন অ্যাসিলেন্ড সহকারী ভূমি কমিশনার। প্রায় দশ বছর আগে ঘটে যাওয়া সেই ঘটনায় চাঁদপুরের বিচারক আদালতের এক রায়ে একজন পৌর কাউন্সিলরসহ পাঁচজনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করা হয়েছে।

১৩ ডিসেম্বর রোববার দুপুরে জেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ কামাল হোসেনের আদালতের এ মামলার রায় হয়। এতে দণ্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছেন,কচুয়া পৌরসভার তিন নাম্বার ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুল্লাহ আল মামুন (৩৬)। স্থানীয় বাসিন্দা আওলাদ সরকার (৪২) পিতা মান্নান সরকার, ইমরান হোসেন (৪০) পিতা আঃ ছাত্তার, সোহাগ হোসেন (৩৫) পিতা হারুনুর রশিদ এবং মো. বিল্লাল (৪২)পিতা আ. রব। আদালতে রায় ঘোষণার সময় অভিযুক্তরা অনুপস্থিত ছিলেন।

এদের প্রথমজনকে চারবছর এবং অন্য চারজনকে ২ বছর ৬ মাস সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। আদালত সূত্রে জানা গেছে, বিগত ২০১০ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি তৎকালিন কচুয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোস্তাফিজুর রহমান পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অভিযুক্তদের হাতে মারধরের শিকার হয়। এ ঘটনায় তিনি নিজেই বাদী হয়ে মামলা করেন।

সেই মামলার প্রেক্ষিতে কচুয়া থানা পুলিশ আদালতে ৮ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করে। এ মামলায় বিচারক ৩ জনকে খালাস প্রদান করেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এই মামলার বাদী মোস্তাফিজুর রহমান বর্তমানে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনে কর্মরত আছেন। এদিকে, রায় ঘোষণার পর অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হলে তারপর থেকে এই রায় কার্যকর হবে। সংলিষ্ট আদালতের এপিপি দিরান ইয়ারিন মেহেবুব এমন তথ্য জানান।