চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের ইলিশ উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে শিক্ষা মন্ত্রী ডাঃ দিপু মনি

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার, চাঁদপুর প্রতিনিধি: চাঁদপুরের ঐতিহ্য রূপালি ইলিশকে নিয়ে চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন জেগে উঠো মাটির টানে শ্লোগান কে নিয়ে ইলিশ উৎসব শুরু করে। এবছর গৌরবের এক যুগ পালন করা হচ্ছে। গতকাল শনিবার ছিল উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠান। শিক্ষা মন্ত্রী ডাঃ দিপু মনি এমপি ভিডিও বার্তায় বক্তব্যে বলেন, চাঁদপুরে চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন সেবা সিটি সেন্টার ইলিশ উৎসব যুগপূর্তি হয়েছে।আমার থাকার ইচ্ছা থাকা স্বত্যে ও সরাসরি থাকতে না পেরে দূঃখ প্রকাশ করছি। তবে আজকে যুক্ত হতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করি।যত দিন পযর্ন্ত আমরা করোনা মুক্ত হতে না পারছি তত দিন পযর্ন্ত আসুন আমরা স্বস্হ বিধি মেনে চলি। ইলিশ উৎসবের সাথে সম্পৃক্ত সকল কে ধন্যবাদ জানান।
তিনি আরো বলেন, ইলিশ সম্পদ রক্ষার জন্য সরকার ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহন করেছে। বিশ্বে আমাদের দেশের ইলিশ সম্পদ রপ্তানীতে শ্রষ্ঠত্ব অর্জন করেছে।তাই এ ইলিশ সম্পদকে রক্ষা করতে চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন ১২ বছর ধরে উৎসবের মাধ্যমে আন্দোলন করে যাচ্ছে। চতুরঙ্গ সাস্কৃতিক সংগঠনকে শুভেচ্ছা জানাই।একই সাথে তিনি চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন আয়োজিত সেবা সিটি সেন্টার এক যুগ পূর্তি ইলিশ উৎসবের উদ্ধোধন ও সমাপনী করেন। শনিবার রবিকেল ৪ টায় প্রথমেই নৃত্য বিষয়ক চুরান্ত পর্বের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।এর পর সংগীত প্রতিযোগীতা চুরান্ত পর্বের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠীত হয়।বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন সুমা দত্ত,রাশেদুল রাব্বি (ভাচ্যুয়েলে বিচারক ছিলেন কৃষ্ণা সাহা, তাহমিনা হারুন), অনিতা নন্দি, মৃণাল সরকার ও হারুন আল রশীদ।সংগীত প্রতিযোগীতা শেষে সংসদীয় প্রীতিবিতর্ক অনুষ্ঠীত হয়।বিতর্কে অংশ গ্রহন করে।
“সরকার দলে ডেপডিল ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এণ্ড কলেজ ও বিরোধী দলে চাঁদপুর সরকারি কলেজ। স্প্রীকার ছিলে চাঁদপুর বিতর্ক একাডেমীর ডাঃ পীযুষ কান্তি বড়ুয়া। রাতে গোল টেবিল বৈঠকে প্রধান আলোচকের বক্তব্য রাখেন পাওয়ার সেল ডিডি প্রকৌশলি মোহাম্মদ হোসেন। অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন স্টাস্ট্র ব্যাংকের চেয়ারম্যান সুরাইয়া তালুকদার,কাজী শাহাদাত, কৃষ্ণা সাহা, ইয়ং ফ্যাশনের চেয়ারম্যান মোঃ সেলিম খান, সহযোগি অধ্যাপক আলমগীর বাহার,মিউকিকের ব্যাবস্হাপনা পরিচালক অ্যাডঃ নাজমা আকতার, নাজ মিউজিকের চেয়ারম্যান এ বি এম মাজহারুল আনাম, শাহ আলম মল্লিকহারিন আল রশীদের সঞ্চালায় ও সংগঠনের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ বিনয় ভূষন মজুমদারের সভাপতিত্বে তা অনুষ্ঠীত হয়।গোল টেবিল বৈঠক শেষে বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হয়। সব শেষে নাজ মিউজিক সেন্টারের পক্ষে সংগিত পরিবেশন করে জনপ্রিয় কণ্ঠ শিল্পী এফ এ সুমন।