চট্টগ্রামে শিশু খুনের আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

মোঃ রাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ নগরের ডবলমুরিং থানাধীন হাজীপাড়া এলাকায় এক নারীর সঙ্গে ঝগড়ার এক পর্যায়ে তার ৩ বছর বয়সী শিশুকে ছুরিকাঘাত করে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত আসামি পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে।

বুধবার (৮ জুলাই) ভোরে ডবলমুরিং থানাধীন ঝর্ণাপাড়া জোড় ডেবার পূর্বপাড় এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) পশ্চিম জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার এএএম হুমায়ুন কবির, ডবলমুরিং থানার ওসি সদীপ কুমার দাশ, পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জহির হোসেন, এসআই অর্নব বড়ুয়া ও এসআই হেলাল উদ্দিনসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, একটি কার্তুজ, চারটি কার্তুজের খোসা, একটি বিদেশি ছুরি ও ৮৭৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নিহত আসামির নাম মো. জসিম উদ্দিন রাজু (৩২)। তিনি ডবলমুরিং থানাধীন হাজীপাড়া আবদুল জব্বার সওদাগর বাড়ির মনির আহমদের ছেলে। জসিম উদ্দিন রাজু তার ভাইয়ের ছেলে মেহেরাব (৩) হত্যা মামলার প্রধান আসামি। রাজুর বিরুদ্ধে নগরের ডবলমুরিং, বন্দর ও হালিশহর থানায় মোট ১৩টি মামলা রয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, জসিম উদ্দিন রাজু একজন পেশাদার ছিনতাইকারী, একাধিক হত্যা মামলার আসামি, অবৈধ অস্ত্রধারী ও পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। জসিম উদ্দিন রাজু ২০১৪ সালের ১৩ জানুয়ারি সিএমপির পুলিশ সদস্য নায়েক ফরিদ উদ্দিনকে আগ্রাবাদ শিশুপার্ক এলাকায় হত্যা করে।

২০১৮ সালে ১৪ মে হাজীপাড়ায় খোরশেদ হত্যা মামলায় অস্ত্রসহ গ্রেফতার হয়। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) রাতে হাজীপাড়া জলিল ম্যানশন এলাকায় ভাইয়ের স্ত্রী নিলু আক্তারের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় জসিম উদ্দিন রাজুর। ঝগড়ার এক পর্যায়ে নিলু আক্তারের ৩ বছর বয়সী ছেলে মেহেরাবকে ছুরি দিয়ে জবাই করে হত্যা করে জসিম উদ্দিন রাজু। পরে রাতেই নিলু আক্তার বাদি হয়ে ডবলমুরিং থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযানে নেমে জসিম উদ্দিন রাজুকে গ্রেফতার করতে ঝর্ণাপাড়া জোড় ডেবার পূর্বপাড় এলাকায় গেলে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।চট্টগ্রামে শিশু খুনের আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত