চট্টগ্রামে ভিন্ন আয়োজনে ইফতার বিক্রি

মোঃরাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ শুরু হয়েছে সিয়াম সাধনার মাস মাহে রমজান। করোনায় মাহে রমজানে ইফতার বেচাকেনায় যোগ হয়েছে এবার ভিন্ন আবহ ও ভিন্ন আয়োজন। করোনার কারণে নগরীর প্রায় সব হোটেল ও রেস্টুরেন্ট বন্ধ। এ অবস্থায় সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে ও প্রশাসনের নির্দেশনা অনুসরণ করে নগরীর অভিজাত হোটেল ও রেস্টুরেন্টগুলো চালু করেছে ইফতারের ‘টেকওয়ে’ ও ‘হোম ডেলিভারির’ মত ব্যতিক্রমী সেবা। ঘরে বসে ফোনে অর্ডার করলেই পৌঁছে যাবে ইফতার সামগ্রী। ইফতার তৈরির সঙ্গে যুক্ত কর্মীরা মাস্ক-গ্লাভস পরে সুরক্ষিত হয়ে পরিচ্ছন্ন পরিবেশেই তৈরি করছে ইফতার।
খুলশী এলাকার দ্য বাস্কেট এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হোসাইন সুপ্রভাতকে বলেন, ‘সাধারণ মানুষের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে ইফতারের ‘টেকওয়ে‘ ও ‘হোম ডেলিভারির‘ ব্যতিক্রমী সেবা চালু করা হয়েছে। ক্রেতারা হটলাইন নম্বরে সকাল ৯টা-দুপুর ২টা পর্যন্ত ইফতার সামগ্রীর অর্ডার করতে পারবেন। অগ্রিম অর্ডারও দিয়ে রাখতে পারেন। অর্ডারের ভিত্তিতে ফয়’স লেক, জালালাবাদ, ওয়্যারলেস, উত্তর খুলশি, দক্ষিণ খুলশি, মহিলা কলেজ, জিইসি এলাকায় পৌঁছে দেওয়া হবে। অন্য এলাকার গ্রাহকেরা অর্ডার অনুযায়ী রেস্টুরেন্টে গিয়ে তৈরি প্যাকেটটি নিয়ে যেতে পারবেন।’ খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এবারও ইফতারের আয়োজনে বিভিন্ন পদের সমাহার রয়েছে।
যেমন- হালিম, মেজবানি মাংস, ফিরনি, ছোলা, চিকেন ফ্রাই, চিকেন কোপ্তা, পেয়াঁজু, বেগুনি, চিকেন চাপ, মালয়েশিয়ান প্রন, ক্রানচি চিকেন, বেফ তেহেরি, জিলাপি থেকে শুরু করে মিলবে প্রায় ৪৫ পদের ইফতার। দ্য বাস্কেট এর পরিচালক দেলোয়ার হোসাইন বলেন, ‘প্রতি কেজি চিকেন হালিম ৪৭৫ টাকা, মাটন হালিম ৬০০ টাকা, বিফ হালিম ৬০০ টাকা, মেজবানি মাংস ৬০০ টাকা, ফিরনি ৩৫০ টাকা, জিলাপি ২৫০ টাকা, বিফ তেহারি ২০০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। ইফতারিতে হোম ডেলিভারির জন্য চার্জ রাখা হয়েছে ৫০ টাকা। দুপুর ২টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টার মধ্যে ডেলিভারি দেওয়া হবে।’ এদিকে নগরীর কাজীর দেউড়ির ‘রোদেলা বিকেলও’ ইফতার বিক্রিতে এবার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে।
ঘরে বসে ফোনে অর্ডার করলেই পৌঁছে যাবে ইফতার। এ বিষয়ে রোদেলা বিকেলের ম্যানেজার শামছু উদ্দিন সুপ্রভাতকে বলেন, ‘ক্রেতাকে আগের দিন রাত ১০টার মধ্যেই তিনটি হটলাইন নম্বরে ফোন করে ইফতারি অর্ডার দিতে পারবে। পরে গ্রাহক মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে একটি কোড পেয়ে যাবেন। সেইসাথে অর্ডার ও ডেলিভারির সময়ও জেনে যাবেন। এছাড়া কোনো গ্রাহক যদি হোম ডেলিভারি নিতে চান তাহলে রোদেলা বিকেলের নিজস্ব পার্সেল সার্ভিস, উবার ইটস এবং হাংগ্রিনাকি এর মাধ্যমে চার্জ পরিশোধ করে ইফতারি আইটেম নিতে পারবেন। দুপুর ২টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টার মধ্যে ডেলিভারি দেওয়া হবে।
’ উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে রমজানের ইফতার ও সেহেরি বিক্রিতে বেশকিছু নির্দেশনা দিয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ সিএমপি। নির্দেশনাগুলো হলো-ফুটপাত বা যত্রতত্র ইফতারি তৈরি ও বিক্রয় করা যাবে না। রেস্টুরেন্ট বা খাবার দোকানে বসে ইফতার করা যাবে না। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ইফতার কিনে প্যাকেটে করে নিয়ে যেতে হবে। সন্ধ্যা ৬টার পর ইফতার বিক্রি করা যাবে না। রেস্টুরেন্ট, খাবার দোকান বা অন্য কোথাও সেহেরি তৈরি, আয়োজন বা বিক্রি করা যাবে না। কোথাও কোন ইফতার পার্টির আয়োজন করা যাবে না। সিএমপি’র অনুমতি ছাড়া কোথাও ইফতার বিতরণ করা যাবে না।