চট্টগ্রামকে পরিকল্পিতভাবে সাজাতে চাই: রেজাউল করিম

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরী গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ব্যক্ত করেছেন নিজের প্রতিক্রিয়া।
বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) সকালে বহদ্দার বাড়িতে তাকে শুভেচ্ছা জানাতে আসেন সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন সহ শুভানুধ্যায়ীরা।
এসময় রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, এই চট্টগ্রামকে আমি পরিকল্পিতভাবে সাজাতে চাই। এজন্য সবার সঙ্গে পরামর্শ করে এবং তা বিশেষজ্ঞদের নিয়ে পর্যালোচনা করে যেটা বাস্তবসম্মত হবে সেটাই গ্রহণ করবো। বিভিন্ন এলাকায় অনেক সমস্যা আছে। ওয়ার্ডগুলোতে-মহল্লায় অনেক দরিদ্র মানুষ বসবাস করে। একজন রিকশা চালকেরও মেধা আছে, বুদ্ধি আছে। আর্থিক সমস্যার কারণে সে হয়তো উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করতে পারেনি। তার বুদ্ধিও অনেক সময় কাজে লাগতে পারে।
এসময় তিনি আরও বলেন, ‘আজ যেটার বিরুদ্ধে আমি প্রতিবাদ করছি এবং বিভিন্নভাবে আন্দোলন-সংগ্রাম করছি সেটা হচ্ছে সন্ত্রাস। আমি নিজেও সন্ত্রাস পালি না, সন্ত্রাসকে প্রশ্রয় দেই না। সাধারণ মানুষ একবেলা না খেয়ে থাকলেও শান্তিতে থাকতে চায়। তাই সন্ত্রাস ও মাদকের ব্যাপারে আমি কঠোর অবস্থানে যাবো। আমি আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর কর্মকর্তাদের সঙ্গে বসবো। তাদের বলবো-এই চট্টগ্রামের মানুষ নিরাপদে থাকতে চায়। অনেক প্রভাবশালী এই সন্ত্রাসীদের মদদ দিচ্ছে। সে ব্যাপারে আমার অবস্থান কঠোর। যতই প্রভাবশালী হোক না কেন-আপনাদের সঙ্গে আপনাদের নির্বাচিত মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী আছে। আমিই সব মোকাবেলা করবো।
এর আগে, চট্টগ্রাম সিটির নতুন নগরপিতা হয়েছেন আওয়ামী লীগের রেজাউল করিম চৌধুরী। ঘোষিত ফলে তিনি বিএনপির প্রার্থী শাহাদাত হোসেনকে ৩ লাখ ১৬ হাজার ৭৫৯ ভোটের ব্যবধানে হারিয়েছেন। পরাজিতের সাথে এত ব্যবধান আর ভোট পড়ার হারের দিক দিয়ে এই নির্বাচনে সৃষ্টি হয়েছে নতুন রেকর্ড।
এবারের নির্বাচনে মোট ভোট পড়েছে ২২ দশমিক ৫২ শতাংশ। যা সিটি করপোরেশন ভোটে নতুন রেকর্ড। তবে স্থগিত আছে দুটি কেন্দ্রের ফলাফল।