ঘোড়াঘাট থানার ওসি আমিরুল ইসলাম প্রত‌্যাহার

আনবেল বাপ্পি, ঘোড়াঘাট প্রতিনিধি: ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবার ওপর হামলার ঘটনায় দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট থানার ওসি আমিরুল ইসলামকে প্রত‌্যাহার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে তাকে প্রত‌্যাহার করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।

ওসি আমিরুল ইসলামকে প্রত্যাহার করে দিনাজপুর পুলিশ লাইনে আনা হয়েছে। এদিকে ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলার ঘটনায় তার বড় ভাই শেখ ফরিদ উদ্দীনের দায়েরকৃত মামলাটি ইতি মধ্যেই ঘোড়াঘাট থানা থেকে স্থানান্তর করে দিনাজপুর ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা নিযুক্ত করা হয়েছে দিনাজপুর ডিবি পুলিশের ওসি ইমাম জাফরকে। এছাড়া এ মামলায় রিমান্ডে নেয়া ৩ জন আসামির মধ্যে ২ জনকে (রঙমিস্ত্রি নবীরুল ইসলাম ও সান্টু কুমার দাস) ৭ দিনের রিমান্ড শেষে আজ শুক্রবার আদালতে হাজির করা হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে তদন্তকারী কর্মকর্তা ইমাম জাফর জানান, আজ বিকালে আসামি নবীরুল ইসলাম ও সান্টু কুমার দাসকে আদালতে হাজির করা হবে। গ্রেফতারকৃত অপর আসামি আসাদুল ইসলামের ৭ দিনের রিমান্ড শেষ হবে আগামীকাল শনিবার।

প্রসঙ্গত গত ২ সেপ্টেম্বর বুধবার দিনগত রাতে সরকারি বাসভবনে ঢুকে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখকে নির্মমভাবে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা। বর্তমানে ইউএনও ওয়াহিদা খানম ঢাকার নিউরো সায়েন্সেস হাসপাতাল এবং তার বাবা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।