গম চাষে আগ্রহ বাড়ছে কুড়িগ্রামে

মোবাশ্বারুল ইসলাম মুরাদ, উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ গম চাষে আগ্রহ বাড়ছে কুড়িগ্রামের উলিপুরের কৃষকদের।

অন্যান্য ফসলের তুলনায় গম চাষে কম খরচ ও কম পরিশ্রম সহজেই লাভবান হওয়া যায় বলেই গম চাষে কৃষকদের আগ্রহ একটু বেশি।

এছাড়া এ চরাঞ্চলে মাটি ও পরিবেশ গম চাষের জন্য খুবই উপযোগী। ফলে দিন দিন গম চাষির সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

জানা যায়, প্রত্যেক বিঘা জমিতে গম চাষে কৃষকের খরচ হয় ছয় থেকে সাড়ে ছয় হাজার টাকা।

আর এক বিঘা জমিতে ১০-১২ মণ গম ঘরে তোলেন কৃষকরা।

ধানের চেয়ে গম চাষে খরচ কম এবং এই ফসল উৎপাদন করতেও কৃষকের পরিশ্রম কম লাগে।

উপজেলার হাতিয়া ইউনিয়নের দাগারকুটি এলাকার কৃষক মোহাম্মদ আলী বলেন, আমি এবারে ২ বিঘা জমিতে গমের আবাদ করেছি আবাদ ভালো হয়েছে ।

আগের তুলনায় আমাদের এখানে গম চাষির সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। চলতি মৌসুমে লাভের আশায় জমি সঠিক নিয়মে প্রস্তুুত করে গমের বীজ বপন করেছি।

আবহাওয়া ঠিক থাকায় ও কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হওয়ায় লাভবান হতে পারবো ।

তবকপুর ইউনিয়নের এলাকার নজরুল বলেন, আমি এই প্রথম ১২ শতাংশ জমিতে গমের আবাদ করেছি আবাদ খুব ভালো হয়েছে।

আরো বেশি কওে পরের বারের আবাদ করবো।

উলিপুর কৃষি বিভাগ জানায়, বিগত বছরের তুলনায় এবার গমের চাষ বৃদ্ধি পেয়েছে। গত বছর উলিপুর উপজেলায় ৫ শত ১০ হেক্টর জমিতে কৃষকরা গমের আবাদ করেছেন।

আর এবারের মৌসুমে একটি পৈৗর সভা সহ ১৩টি ইউনিয়নে ৯ শত হেক্টর জমিতে গম উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

অর্জিত হয়েছে ৭শত ১০ হেক্টও জমিতে উলিপুর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ সাইফুল ইসলাম বলেন, দেশে গমের

উৎপাদন বৃদ্ধি করা গেলে খাদ্য চাহিদা অনেকটাই পূরণ করা যাবে। উলিপুরে গমের ফলন ভালো হওয়ায় কৃষকরা গম চাষে ঝুঁকছেন।

আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় গমের চাষ করে কৃষকরা ভালো ফলন পাবেন বলে আশা করছি। এবারে কৃষকদেরকে সারবীজ দেয়া হয়েছে।