খুলনায় স্বাস্থ্যবিধি না মানায় লক্ষাধিক টাকা জরিমানা ও স্বল্প আয়ের অসহায় ব্যাক্তিদের মাঝে ম্যাক্স বিতরণ করেন

জাহাঙ্গীর আলম (মুকুল), ডুমুরিয়া উপজেলা প্রতিনিধি:  আজ খুলনা মহানগরীতে সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা মোহাম্মদ হেলাল হোসেন মহোদয়ের নেতৃত্বে পরিচালিত হয় মোবাইল কোর্টের অভিযান। এ সময় একদিকে যেমন স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করার কারণে কঠোর অবস্থান গ্রহণপূর্বক জরিমানা করা হয়, অপরদিকে অসহায় দরিদ্র রিক্সাচালক, দিনমজুর, শ্রমিক ও পথচারীদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়।
মানবিকতা ও কঠোরতার মিশেলে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার এক অনন্য সাধারণ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন খুলনার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মহোদয়। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা মোঃ ইউসুপ আলীকে সাথে নিয়ে জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মহোদয় নগরীর ডাকবাংলো, সাতরাস্তা, পিটিআই মোড়, রয়েলের মোড় এবং সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মোবাইল কোর্টের অভিযানে নেতৃত্ব প্রদান করেন।
এ সময় জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মহোদয়ের সঙ্গীয় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোঃ রাশেদুল ইসলাম, জনাব দেবাশীষ বসাক, জনাব শারমিন জাহান লুনা এবং জনাব নূরী তাসমিন ঊর্মি স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গের দায়ে বিভিন্ন আইনে ২৪ জন ব্যক্তিকে ১,১৫,০০০/- (এক লক্ষ পনের হাজার) টাকা জরিমানা করেন। সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮-এর ২৪(১) ধারায় এবং দণ্ডবিধি, ১৮৬০-এর ২৬৯ ধারায় এসব জরিমানা করা হয়।
অপরদিকে জেলা প্রশাসক মহোদয় ও তাঁর সঙ্গীয় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজস্ট্রেট, খুলনাসহ জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ স্বল্প আয়ের অসহায় নিম্নবিত্ত মানুষের মাঝে স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ হিসেবে মাস্ক বিতরণ করেন। এ সময় নগরীর বিভিন্ন স্থানে প্রায় পাঁচ শতাধিক মাস্ক বিতরণ করা হয়।
এ ছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জনগণকে সচেতন করে হ্যান্ডমাইকে প্রচারণা চালানো হয়। মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার, খুলনা সদর থানা পুলিশ, সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশ এবং আনসারের সদস্যবৃন্দ। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে এবং স্বাস্থ্যবিধি অমান্যকারীদের আইনের আওতায় আনতে জেলা প্রশাসনের এমন উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।