খুলনায় স্কুল ছাত্র বাপ্পী হত্যায় ১ জনের ফাঁসি ৫জনের যাবজ্জীবন রায় ঘোষণা

আঃ রাজ্জাক শেখ, খুলনা প্রতিনিধিঃ খুলনার খালিশপুরে প্লাটিনাম জুটমিল হাই স্কুলের শিক্ষার্থী মফিজুল ইসলাম বাপ্পী (১৬) হত্যা মামলায় রায় ঘোষণা করেছেন আদালত। রায়ে মো. রকিকে মৃত্যুদণ্ড ও ৫ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- নজরুল, রবিউল, আলামিন, মিলন ও মুজিব হাওলাদার। নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় ইব্রাহিম ও হাসানকে খালাস দেওয়া হয়েছে। প্রায় ১০ বছর পর বুধবার দুপুরে অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক এসএম আশিকুর রহমান এ রায় দেন। বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোমিনুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, মামলায় ৮ জন আসামির মধ্যে মো. রকির ফাঁসির আদেশ দেওয়া হয়েছে। ৫ জনকে যাবজ্জীবন ও ২ জনকে খালাস দেওয়া হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্ত প্রত্যেক আসামিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় রকি, নজরুল ও আলামিন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বাকিরা পালাতক রয়েছেন। আদালত সূত্রে জানা যায়,

২০১০ সালের ১০ অক্টোবর সন্ধ্যায় প্লাটিনাম স্কুল মাঠে বাপ্পী তার বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিল। এসময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সন্ত্রাসীরা বাপ্পীর বন্ধু রাজুর ওপর হামলা করে। বন্ধুকে বাঁচাতে বাপ্পী সন্ত্রাসীদের বাধা দিলে তারা তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এই সুযোগে রাজু পালিয়ে যায়। পরে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বাপ্পী দুই চিকিৎসকের কাছে মৃত্যুকালীন জবানবন্দি দেয়।

পরে রাত ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়। বিষয়টি বেশ আলোচিত হয়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই হাফিজুর রহমান মামলা করেন। গ্রেফতার হওয়ার পর আসামি রকি ও নজরুল আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়। এ হত্যা মামলায় চার্জশিটভুক্ত ১৮ জনের মধ্যে ১৬জন আদালতে সাক্ষ্য দেন। ২০১২ সালের ৩১ মার্চ আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।