খুলনায় মাদ্রাসা ছাত্রের মাকে যৌণ হয়রাণির অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার

জাহাঙ্গীর আলম মুকুল, ডুমুরিয়া খুলনা প্রতিনিধি: খুলনার পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনির নাছিরপুর-রেজেকপুর বাইতুসনুর আয়েশা বুকমি হাফেজিয়া মাদরাসায় এক ছাত্রের মাকে যৌণ নির্যাতনের অভিযোগে সংশ্লিষ্ট মাদ্রাসার শিক্ষক মেহেরুল্লাহ (২৩) কে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। আটক শিক্ষক সাতক্ষীরার তালা উপজেলার খলিল নগর গ্রামের মৃত একিম শেখ’র ছেলে। এব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।
মামলার বিবরণ ও থানা পুলিশ জানায়, সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মহল্লাপাড়ার জনৈক মীর ইয়াসিন আলী দম্পতি পাইকগাছার নগর শ্রীরামপুরের আরশাদ আলীর বাড়ীতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করেন। এখান থেকে তারা তাদের ছেলে মেহেদী (১৩) নাছিরপুরস্থ উক্ত মাদ্রাসায় হেফজো পড়া-শুনা করান। ইয়াসিনের স্ত্রীর অভিযোগ, ছেলেকে ভালো ভাবে পড়া-শুনা করাবেন এমন প্রলোভন দেখিয়ে মাদ্রাসার শিক্ষক মেহেরুল্লাহ তাকে কু-প্রস্তাব দিত।
সর্বশেষ ৯ জুন সকালে ছেলেকে মাদ্রাসায় দিতে গেলে হুজুর তাকে অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে ছেলের পড়া-শুনার ব্যাপারে খোঁজ-খবর নেওয়ার এক পর্যায়ে অফিসের দরজা বন্ধ করে দেন। এসময় কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই তিনি তাকে জড়িয়ে ধরে যৌণ হয়রানী করেন। এ ঘটনায় তিনি অভিযোগ নিয়ে প্রথমত কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ি ও পরে পাইকগাছা থানায় উপস্থিত হয়ে নারী-শিশু নির্যাতন দমন আইনে শিক্ষক মেহেরুল্লাহর বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন,যার নং-১০। পাইকগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ এজাজ শফী জানান, অভিযুক্ত মেহেরুল্লাহকে গ্রেপ্তারপূর্বক বুধবার পাইকগাছার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।