খুলনায় চাঁদা দাবির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আ. রাজ্জাক শেখ, খুলনা প্রতিনিধি: খুলনার রূপসায় চাঁদা দাবির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান সাধন অধিকারীর বিরুদ্ধে রূপসা থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। বুধবার( ১৫ জুলাই) রুপসা থানায় মামলাটি দায়ের করেন উপজেলার আলাইপুর গ্রামের বজলুর রশিদ শিকদার এর ছেলে আব্দুর রউফ শিকদার।

সাধন অধিকারী উপজেলার ঘাটভোগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। এ মামলায় ৫ জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলায় আসামীরা হলেন ঘাটভোগ ইউনিয়নের ডোবা গ্রামের মৃত গুরুদাস অধিকার ছেলে ইউপি চেয়ারম্যান সাধন অধিকারী, একই ইউনিয়নের আলাইপুর গ্রামের আজগর শিকদারেরর ছেলে হিরণ শিকদার(২৫), হিরক শিকদার(৩০), আজগর শিকদার(৬০) ও তকছেদ শিকদারের ছেলে লিটন শিকদার (২৬)। এজাহার সূত্রে জানা গেছে,

উপজেলার ঘাটভোগ ইউনিয়নের আলাইপুর হতে পালেরহাট পর্যন্ত জিসি রাস্তা সংস্কার কাজ চলছে। রাস্তার ঠিকাদার ইদ্রিস শেখের নিকট থেকে সাব ঠিকাদার হিসেবে রাস্তায় বালু ভরাটের কাজ নেয় আ. রউফ শিকদার। কাজ করার অবস্থায় ইউপি চেয়ারম্যান সাধন ও তার অনুসারীরা বিভিন্ন সময় বাদীর নিকট চাঁদাদাবী করে না পেয়ে কাজও বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

গত ১৪ জুলাই রাত আনুমানিক ৮টার সময় আলাইপুর ব্রীজের পশ্চিমপাশে^ সাধনের নেতৃত্বে আসামীরা বাদীর নিকট ১লাখ টাকা দাবি করে। টাকা দিতে অস্বীকার করায় চেয়ারম্যান হুমকি দেয় শালাকে জীবনে শেষ করে দিবে কথা শুনে আসামী হিরণ তার হাতে থাতা হকিস্টিক দিয়ে হত্যার মাথায় আঘাত করে তা লক্ষ্য ভ্রষ্ট হয়ে রউফের ডান হাতের বাহুতে গুরুত্ব জখম হয়। এসময় অন্য আসামীরা তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারপিট করিয়া জখম করে। এসময় বাদীর মারপিট ঠেকাতে তার ভাই আজিজুল ও পিতা বজলুর রশিদ কেও তারা মারপিট করে জখম করে চলে যায়

স্থানীয়রা তাদের উদ্বার করে রূপসা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এছাড়া চেয়ারম্যান সাধন এর বিরেুদ্বে পূর্বে উপজেলা প্রকৌশলী সেলিম কে মারপিট করে আহত করার অভিযোগ রযেছে। পরে অবশ্যই উপজেলা প্রশাসনের নিকট ক্ষমা চেয়ে রক্ষা পায় সে। এছাড়া সে গোয়েন্দা সংস্থার তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী। মামলার বাদী আব্দুর রউফ শিকদার এর ভাই আজিজুল শিকদার বলেন, মামলার পর বাদী ও আমাদের পরিবারকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি প্রদান করতেছে। এ অবস্থায় আমরা পরিবার নিয়ে চরম আতংঙ্কের মধ্যে আছি। তবে মামলার বিষয়ে ঘাটভোগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাধন অধিকারীর ব্যাক্তিগত মোবাইল নম্বারে (০১৭২০৮৫০৪৭২) একেক দফা যোগাযোগ করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

রুপসা থানার ওসি (তদন্ত) সর্দার ইব্রাহিম হোসেন সোহেল বলেন, রুপসার ঘাটভোগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাধন অধিকারীর রিরুদ্বে মামলা রুজু করা হয়েছে। রুপসা থানার মামলা নম্বর ০৫ (১৫ জুলাই ২০২০) । ধারা ,১৪৩/৩২৩/৩২৫/৩৮৫/৩০৭/৫০৬/১১৪ পেনাল কোড। তবে আসামীদের গ্রেফতার করার চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি (তদন্ত) সর্দার ইব্রাহিম হোসেন সোহেল ।