খুলনায় করোনায় মৃত লাশ ডুমুরিয়া তাকওয়া ফাউন্ডেশন নিজ মহল্লায় কালিকাবাড়ি কবরস্থানে দাফন করলেন

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (মুকুল), ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধিঃ খুলনা মহানগরের মানিকতলা জামে মসজিদের ক্যাশিয়ার ও পার্টসের ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী গতকাল রাতে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতেলে মারা যান।
মৃতের ভাই ডুমুরিয়া তাকওয়া ফাউন্ডেশনের দাফন টিমের সাথে সোমবার রাত সাড়ে ১২ টার সময় যোগাযোগ করলে ডুমুরিয়া থেকে ফজরবাদেই দাফনের টিম রওয়া দেয়।

খুলনা মেডিকেলে যাবার পর মৃতের ভাই বলেন আমাদের মহল্লায় গোসল করাতে দিবো না।
তাই তৎক্ষনাত শহরের বসুপাড়া কবরস্হানের গোসল খানায় লাশ নিয়ে গেলে সেখারকার দায়িত্ত্বে থাকা রিজাউল জানায় এখানে গোসলের ব্যবস্হা নেই। অনেক অনুরোধ করলেও কোন ফল হলোনা।
দাফন টিমের সমন্ময়কারী হাফেজ মো: ওয়াহিদুজ্জামান নিরালা কবরস্হানের কেয়ারটেকারের সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে সে সাফ বলে দেয় এখানে কোন বন্দবস্ত নেই।

গোয়ালখালীতেও যোগাযোগ করেও কোন ব্যবস্হা না হওয়ায় দাফন টিমের সমন্ময়কারী মৃতের ভাইকে বলেন আপনার মহল্লায় চলেন সেখানেই যে কোন এক জায়গায় আমরা গোসলের ব্যবস্হা করবো।
সেখানে মানিকতলায় যাবার পর কিছু লোক ওখানে গোসল করাতে দিতে নারাজ। এবং স্হানীয় বাসিন্দাদের সাথে বাকবিতন্ডা ও মারমুখী অবস্হা তৈরী হয়।

এক পর্যায়ে দাফন টিমের সমন্ময়কারী ডি সি অফিসে ফোন করে ফোর্স পাঠানোর কথা বল্লে অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই ফোর্স আসলে পরিস্হিতি শান্ত হয়। এবং সেখানেই গোসল শেষে মানিক তলা মসজিদ চত্বরে জানাজা শেরে স্হানীয় মহেশ্বরপাশা কালিকাবাড়ী কবরস্হানে মৃত মোহাম্মাদ আলী কে দাফন করা হয়।

দাফন টিমে উপস্হিত ছিলেন সমন্ময়কারী হাফেজ মো: ওয়াহিদুজ্জামান, মাও: শরীফুল ইসলাম, মাও: ইলিয়াস হোসাইন, মো: আব্দুস সোবহান খান, মাও: আল আমীন, হাফেজ আবু রায়হান মৌলভী আব্দুল হাই, মো: ওয়াক্কাস আলী, মো: ইমাম হাসান, মো: জাহিদুল ইসলাম, মো: আব্দুল হালিম প্রমুখ।