খালিয়াজুরীতে প্রতিপক্ষের হামলায় গৃহবধূর মৃত সন্তান প্রসব, আটক ১ জন

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা প্রতিনিধি: নেত্রকোণা জেলা খালিয়াজুরী উপজেলার মেন্দিপুর ইউনিয়নের বলরামপুর গ্রামে মঙ্গলবার রাতে প্রতিপক্ষের হামলায় আইরিন আক্তার (২৫) নামে এক গর্ভবর্তী মহিলার পেটে থাকা নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে।

রাতে গুরুতর আহত গর্ভবর্তী আইরিন আক্তার(২০)কে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে সিজার করে পেট থেকে মৃত শিশু বের করা হয়।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, খালিয়াজুরী উপজেলার মেন্দিপুর ইউনিয়নের বলরামপুর গ্রামের এক অসহায় দিনমজুর আব্দুল হামিদের সাথে পূর্ব শত্রুতার জেরে ২৯মার্চ (রবিবার)পূর্বপরিকল্পিত ভাবে সবুজ মিয়া ও কামাল মিয়ার নের্তৃত্বে হামলাকারীরা এই হামলা চালায়।

এ সময় সুয়েল মিয়ার স্ত্রী ও আব্দুল হামিদের মেয়ে গর্ভবর্তী আইরিন আক্তারকে (২০) বেধড়ক মারপিট করে তলপেটে লাথি মারে। হামলায় গুরুতর আহত গর্ভবর্তী আইরিন আক্তারকে খালিয়াজুরী হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রসূতির অবস্থা শংকটাপন্ন থাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য মোহনগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেন কর্তব্যরত ডাক্তার। মোহনগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় আহত আইরিন আক্তারের নবজাতকের মৃত্যু হয় এবং গতকাল (২১এপ্রিল) নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে সিজার করে তার পেট থেকে মৃত শিশু বের করা হয়।

আইরিন আক্তারের পিতা অসহায় আব্দুল হামিদ বলেন, আমার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে গর্ভবর্তী মেয়েকে মারধর করে গুরুতর আহত করে। হামলায় আমার মেয়ের গর্ভে থাকা সন্তান মারা যায়। আমি হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।

এ বিষয়ে খালিয়াজুরী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ টি এম মাহমুদুল হক বলেন, ঘটনার সত্যতা পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে অন্য হামলাকারীদেরও গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।