খালিয়াজুরিতে নৌকার মাঝি কাইয়ুম হত্যা মামলার রহস্য উন্মোচন৷

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা জেলা প্রতিনিধিঃ নেত্রকোণা জেলার খালিয়াজুরি উপজেলায় ০৬ জুন কৃষ্ণপুর হতে ইয়ারাবাজ বাজার, শাল্লায় যাত্রী নিয়ে গিয়েছিলেন ভাড়া করে নৌকা চালানো মাঝি কাইয়ুম। তারপর থেকেই সে নিখোঁজ হয়ে যায় ৷ ১০ জুন আদাউরা এলাকার বাইল্লার হাওরে একটি লাশ ভাসতেছে

এমন সংবাদে তা উদ্ধারের পর শনাক্ত হয় নৌকার মাঝি কাইউমের লাশ ৷ ১১ তারিখ ভিকটিমের ভাই হত্যা মামলার এজাহার দায়ের করেন৷ নৌকা ভাড়া নেয়া ব্যক্তি সৈয়দ নূর শফি পলাতক হওয়ায় তাকে নানা জায়গায় অভিযান চালিয়ে ১৬ জুন গ্রেফতার করা হয়৷

বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বেরিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য৷ নৌকার মাঝে এক মেয়েকে ধর্ষনের ঘটনা ভিডিও করেছিল ভিকটিম নৌকার মাঝি৷ তাই অপরাধীগণ সাক্ষ্য ঢাকতে হাত পা বেঁধে নদীতে ফেলে নৃশংসভাবে হত্যা করে মাঝি কে ৷ পরে তারা ১৭,০০/= টাকায় আজমেরীগঞ্জ বাজারে নৌকাটিও বিক্রয় করে দেয়৷ ঘটনার সাথে জড়িত আরো ৪ জনকে নানা জায়গা হতে গ্রেফতার করা হয়৷ পুলিশ সুপার,

নেত্রকোণার সার্বিক দিকনির্দেশনায় ও অতি: পুলিশ সুপার (অপরাধ) এর তদারকিতে অফিসার ইন চার্জ, খালিয়াজুরীর নেতৃত্বে এক চৌকস টিম এ হত্যা মামলার রহস্য উন্মোচন ও আসামী গ্রেফতারে নিরলসভাবে কাজ করেছে৷