ক্যাচ দিয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরে জানলেন তিনি আউট নন!

 ডিপ স্কয়ার লেগে ক্যাচ দিয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরে গেলেন ব্যাটসম্যান। ক্রিজে এলেন নতুন একজন। তিনি যখন খেলার জন্য তৈরি হচ্ছেন, তখন টিভি আম্পায়ার জানালেন আগের ডেলিভারিটি ছিল ‘নো’ বল। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দর্শকরা করতালি দিয়ে আবারও স্বাগত জানালেন ‘ক্যাচ আউটে’ ফেরা ব্যাটসম্যানকে।

ঘটনাটি বিপিএলে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স ও ঢাকা প্লাটুন ম্যাচে। সোমবার কুমিল্লার ওপেনার ভানুকা রাজপাক্সের নামে পাশে তখন ২১ রান, আর কুমিল্লার সংগ্রহ ৪০/২। ওয়াহাব রিয়াজের করা ইনিংসের পঞ্চম ওভারের পঞ্চম বলে এ লঙ্কান ব্যাটসম্যান ক্যাচ তুলে দেন সীমানা দড়ির কাছে দাঁড়িয়ে থাকা মেহেদী হাসানের কাছে

ইয়াসির আলি রাব্বি আসেন নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে। তাকে ফিরে যেতে হয় খানিক পরেই। কারণ, তৃতীয় আম্পায়ার মোর্শেদ আলি খান সুমন টিভি রিপ্লে দেখে ধরে ফেলেন আগের বলে ওয়াহাবের পা থাকেনি পপিং ক্রিজের দাগের ভেতর।

সঙ্গে সঙ্গে ড্রেসিংরুম থেকে দৌড়ে সিঁড়ি বেয়ে মাঠে নামেন রাজাপাক্সে। দলের অনেকেই করতালি দিয়ে স্বাগত জানান। পরে এ লঙ্কান ঘুরিয়ে দেন কুমিল্লার ইনিংসের মোড়। ডানহাতি ব্যাটসম্যান খেলেন ৬৫ বলে ৯৬ রানের অনবদ্য ইনিংস। তাতে দল পায় ১৬১ রানের পুঁজি।

নো বলের সিদ্ধান্তে ঢাকার খেলোয়াড়দের মাঝে দেখা গেছে অসন্তুষ্টি। দলটির ওপেনার তামিম ইকবাল বাংলাদেশি ফিল্ড আম্পায়ার গাজী সোহেলের সঙ্গে অনেকক্ষণ কথা বলেন সেসময়।

টিভি আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়ে বিপিএলের টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান ও অভিজ্ঞ ম্যাচ রেফারি রকিবুল হাসান জানান, যথাযথ সিদ্ধান্তই দিয়েছেন আম্পায়ার।

‘মাঠের বাইরে যাওয়া ব্যাপার না। আউট দেয়ার পর পরবর্তী বল হওয়ার আগ পর্যন্ত তাকে ফিরিয়ে আনতে পারবেন আম্পায়াররা। যদি তাদের মনে হয় এটা নো-বল হয়েছে। তবে মাঠ আম্পায়ারদের উচিৎ ছিল নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত ব্যাটসম্যানকে মাঠেই আটকে রাখা।’

ক্রিকেটে এমন ঘটনা অবশ্য নতুন নয়। এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ইংল্যান্ড সেন্ট লুসিয়া টেস্টেও দেখা গিয়েছিল এমন। উইন্ডিজের পেসার আলঝারি জোসেফকে ফিরতি ক্যাচ দিয়েছিলেন বেন স্টোকস। মাঠ ছেড়ে বেরিয়েও গিয়েছিলেন তিনি। টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, ওভার স্টেপিং করেছিলেন জোসেফ। ব্যাটসম্যানকে আবার ডেকে পাঠান আম্পায়ারা।